গুগুলে আপনি যখন পিপিসি বা ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপন দিবেন তখন সেই বিজ্ঞাপন কতটা ভালো ফলাফল দিবে সেটা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে আপনি ঠিক কতটা ভালো ভাবে বিজ্ঞাপনটি অপটিমাইজ করতে পারছেন তার উপর। আর আপনি যখন ভালো ভাবে অপটিমাইজ করতে পারবেন, তখন গুগুল আপনার বিজ্ঞাপনকে অন্যান্য বিজ্ঞাপন থেকে বেশি প্রাধান্য দিবে এবং একে একটি কোয়ালিটি স্কোর দিবে। আপনার কোয়ালিটি স্কোর যত বেশি আসবে, বুঝতে হবে আপনি তত ভালো ভাবে অপটিমাইজ করতে পেরেছেন। 

এখন প্রশ্ন আসতে পারে, এই অপটিমাইজেশন বা কোয়ালিটি স্কোর কেন এত গুরুত্বপূর্ণ? এর কারণ হল একই কিওয়ার্ডের উপরে শুধু আপনি যে বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন তা কিন্ত নয় বরং আপনার সাথে আরো হাজার মানুষ একই কিওয়ার্ডে বিজ্ঞাপন দিতে পারে। আর তাদের বিজ্ঞাপন থেকে আপনার বিজ্ঞাপনটি ভালোভাবে পারফর্ম করার জন্য আপনার বিজ্ঞাপনের কোয়ালিটি স্কোর গুরুত্বপূর্ণ।

পিপিসি বা গুগুলের ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপনে কোয়ালিটি স্কোর কীভাবে বৃদ্ধি করবেন, জানতে ব্লগটি পড়ুন ..

আজকে আমরা কথা বলব এই কোয়ালিটি স্কোর নিয়ে। আজকের এই লেখা থেকে আপনি জানবেন কোয়ালিটি স্কোর কাকে বলে এবং গুগুল কীভাবে এই কোয়ালিটি স্কোর নির্ধারণ করে থাকে।

কোয়ালিটি স্কোর কি?

আপনি যে কিওয়ার্ডের উপরে বিজ্ঞাপনটি দিতে যাচ্ছেন সেই কিওয়ার্ডটির সাথে আপনার বিজ্ঞাপন এবং ল্যান্ডিং পেজ কতটা সামঞ্জস্যপূর্ণ সেটা নির্ণয় করার পর গুগুল একটি মার্ক দেয় আপনার বিজ্ঞাপনটিকে। যত বেশি মার্ক পাবেন বুঝতে হবে আপনার বিজ্ঞাপনটিকে গুগুল তত বেশি রিলেভেন্ট মনে করছে।

ধরুন আপনি বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন দুধের তৈরি পণ্যে কিওয়ার্ডের উপর, কিন্তু আপনার পণ্যটি সরাসরি দুধের তৈরি নয় বরং চিজ দিয়ে তৈরি। তাহলে গুগুল আপনার বিজ্ঞাপনটি “দুধের তৈরি পণ্য” কিওয়ার্ডের জন্য তত বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করবে না।

গুগুল কেন এই কোয়ালিটি স্কোর ব্যবহার করে থাকে?

আদতে একটি কিওয়ার্ডের উপরে যখন অনেকেই বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন তখন গুগুলকে নির্ধারণ করতে হয় কার বিজ্ঞাপনটি আগে দেখাবে এবং গুরুত্বপূর্ণ প্লেসমেন্টের মধ্যে কার বিজ্ঞাপনটি বেশি দেখানো হবে। আর এজন্যই গুগুলকে নির্ধারণ করতে হয় আপনার বিজ্ঞাপনটি কিওয়ার্ডের সাথে আদতে মানানসই কি না আর এতে আদৌ ইউজারের জন্য উপকারী কি না। কেননা ডিজিটাল মার্কেটিং এর যুগে এখন প্রত্যেকেই আমরা সবাই নিজেদের ইচ্ছেকে প্রাধান্য দিচ্ছি।

যেমন ইউজার যদি চায় দুধের তৈরি পণ্য, তখন যদি বিজ্ঞাপন আসে পিজ্জা তখন কিন্তু ইউজার সেই বিজ্ঞাপনে ক্লিক করার সম্ভাবনা অনেক কম থাকে। আর এতে বিজ্ঞাপনটির সঠিক কার্যকরীতা হারায়। বিজ্ঞাপনকে আরো অনেক বেশি কার্যকর করার জন্য গুগুল কোয়ালিটি স্কোর ব্যবহার করে থাকে।

গুগুল কীভাবে কোয়ালিটি স্কোর কীভাবে নির্ধারিত করে?

গুগুল মূলত একটি প্রোগ্রাম তৈরি করেছে, যার সাহায্যে অটোমেটিক ভাবেই এই কোয়ালিটি স্কোর নির্ধারিত হতে থাকে। তবে হ্যাঁ! আপনি যদি কোন রিপোর্ট করেন তাহলে হয়ত সেটা ম্যানুয়াল ভাবে চেক করা হতে পারে। আপনার সিপিসি বা ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপনটি কেমন, আপনার ল্যান্ডিং পেজের কোয়ালিটি কেমন, আপনি কতদিন ধরে এই সার্ভিস প্রদান করে আসছেন ইত্যাদি নানা কারণের উপর এই কোয়ালিটি স্কোর নির্ভর করে।

তবে অনেক বিজ্ঞাপন বিশেষজ্ঞরা আবার মনে করে থাকেন, আপনার দেয়া বিজ্ঞাপনটি কতজন মানুষের কাছে পৌঁছে গেছে এবং তাদের মধ্য থেকে কত পার্সেন্ট মানুষ আপনার বিজ্ঞাপনে ক্লিক করেছে সেটা আপনার বিজ্ঞাপনের কোয়ালিটি স্কোর নির্ধারণের ক্ষেত্রে সবচাইতে বড় একটি ফ্যাক্টর হিসেবে কাজ করে। আর তাই আপনার দেয়া বিজ্ঞাপন যদি অনেক বেশি মানুষ ক্লিক করে তাহলে অটোমেটিক ভাবেই গুগুল সেটাকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিয়ে দিবে।

পিপিসি বা গুগুলের ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপনে কোয়ালিটি স্কোর কীভাবে বৃদ্ধি করবেন, জানতে ব্লগটি পড়ুন ..

যেমন ধরুন আপনি একটি বিজ্ঞাপন দিলেন এবং আপনার কম্পমিটিটর মিঃ রহিম আরেকটি একই ধরণের বিজ্ঞাপন দিল। এখন দুইজনের বিজ্ঞাপনই এক হাজার জন মানুষের কাছে পৌঁছেছে তাদের মধ্যে আপনার বিজ্ঞাপনে চারশো জন ক্লিক করেছে কিন্তু মিঃ রহিমের বিজ্ঞাপনে মাত্র একশ জন ক্লিক করেছে। আর তাই গুগুল আপনার বিজ্ঞাপনটিকেই গুরুত্ব দিবে বেশি। প্রথমে আপনার বিজ্ঞাপনটি মানুষের কাছে প্রদর্শিত হবে এবং আপনার বিজ্ঞাপন দেয়া শেষ হলে তখন মিঃ রহিমের বিজ্ঞাপনটি মানুষের কাছে যাবে।

আর তাই এখানে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল আপনার বিজ্ঞাপনকে যত বেশি সম্ভব আকর্ষণ ধরে রাখা। তবে এটাও মনে রাখতে হবে যে চাটুকদার বিজ্ঞাপনে প্রাথমিক ভাবে অনেক বেশি ক্লিক আসলেই যদি আপনার সার্ভিস এবং ল্যান্ডিং পেজের কোয়ালিটি কম হয় তাহলে গুগুল আপনার পিপিসি ক্যাম্প্যাইনের কোয়ালিটি স্কোর কমিয়ে দিবে। এছাড়া এসব কিছু বিবেচনা করার মাধ্যমে আপনি যদি তথ্য ও উপাত্ত অনুযায়ী ডেটা ড্রিভেন বিজ্ঞাপন দিতে পারেন তাহলে সবচাইতে বেশি কার্যকর হবে সেটা।

কোয়ালিটি স্কোর কেন এত গুরুত্বপূর্ণ?

শুধুমাত্র গুগুল নয় বরং ফেসবুকের বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রেও দেখবেন প্রথমে ফেসবুক চেক করে দেখে যে আপনার বিজ্ঞাপনটি দেখানো যাবে কি না। অর্থাৎ আপনার বিজ্ঞাপনটিকে প্রথমেই একটি কোয়ালিটি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হয়। ঠিক একই রকম গুগুলের ক্ষেত্রেও আপনার কোয়ালিটি স্কোর অনুযায়ী বিজ্ঞাপনের গুরুত্ব নির্ধারিত হয়ে থাকে। আপনার পিপিসি ক্যাম্পেইনের কোয়ালিটি স্কোর অনুযায়ী গুগুল নির্ধারণ করে থাকেঃ

** আপনার বিজ্ঞাপনটি এড অকশনের মধ্যে দেয়া যাবে কি না

** বিজ্ঞাপনগুলোর মধ্যে আপনার বিজ্ঞাপনের সিরিয়াল কত

** আপনাকে বিজ্ঞাপনটির প্রতি ক্লিকের জন্য কত টাকা প্রদান করতে হবে

প্রথমেই আপনার বিজ্ঞাপনকে কোয়ালিটি টেস্টে উত্তীর্ণ হতে হবে

গুগুলে কখনই অসঙ্গতিপূর্ণ বিজ্ঞাপন দেখানো হয়ে থাকে না। আপনার বিজ্ঞাপনটি ইউজাররা দেখতে চায় কি না অথবা দেখতে আগ্রহী কি না সেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর তাই আদতে আপনি কত টাকা দিচ্ছেন সেটা এখানে কখনই আলোচ্য বিষয় নয়।

অর্থাৎ আপনি যদি নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে অনেক বেশি টাকা দিয়েও চান যে আপনার বিজ্ঞাপনটি সেই কিওয়ার্ডের ক্ষেত্রে দেখানো হোক, তাহলেও আদতে লাভ নেই। কেননা গুগুল কখনই আপনার টাকাকে প্রাধান্য দিবে না, গুগুল বিজ্ঞাপন দাতা এবং ইউজারের মধ্যে চমৎকার এবং সবচাইতে ভালো সমন্বয়টি চেয়ে থাকে।

যেমন ধরুন আপনি একটি গাড়ির গেমস ডেভেলপমেন্ট করেছেন এবং আপনি চান যে “সেরা গাড়ি” কিওয়ার্ডের ক্ষেত্রে আপনার বিজ্ঞাপন যাতে প্রদর্শিত হয়। আর এর জন্য আপনি অনেক বেশি টাকা প্রদান করতেও প্রস্তুত। কিন্তু এতে কোন লাভ হবে না, আপনি কখনই সেরা গাড়ি’র কিওয়ার্ডে একটি গাড়ির গেমস এর বিজ্ঞাপন দেখাতে পারবেন না।

বিজ্ঞাপন র‍্যাংকিং কেন গুরুত্বপূর্ণ?

ধরুন ঢাকার মহাখালী এলাকায় যখন বিজ্ঞাপন দেয়া হয় তখন তারা অনেক বেশি পণ্য ক্রয় করে থাকে। অপরদিকে ফার্মগেট এলাকার মানুষ অতটা বেশি পণ্য ক্রয় করে না। আর তাই র‍্যাংকে আপনার বিজ্ঞাপনটি যদি পিছিয়ে থাকে তাহলে প্রথমে যার বিজ্ঞাপন দেখানো হবে তার কাছ থেকেই মহাখালীর মানুষেরা পণ্য ক্রয় করে ফেলবে।

আপনার বিজ্ঞাপনটি যদি মহাখালী এলাকায় দেখানো হয়, তবুও কোন লাভ হবে না। কেননা ইতোমধ্যেই তারা এই পণ্যটি আপনার আগে অন্য কারো বিজ্ঞাপন দেখে ক্রয় করে ফেলেছে। সুতরাং বুঝতেই পারছেন যে বিজ্ঞাপন র‍্যাংকিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।

আর গুগুল যখন দেখবে আপনার বিজ্ঞাপনটির কোয়ালিটি স্কোর অনেক বেশি তখন সবার আগে এই কিওয়ার্ডে আপনার বিজ্ঞাপনটিই দেখানো হবে। আপনার বিজ্ঞাপনগুলো শেষ হলেও কেবল তখন উক্ত কিওয়ার্ডে অন্য কারো বিজ্ঞাপন দেখানো হবে।

আর তাই আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপনে বেশি ফলাফল যদি পেতে চান তাহলে কোয়ালিটি স্কোর খুব ভালো রাখার চেষ্টা করুন। রিলেভেন্ট বিজ্ঞাপন এবং চমৎকার ইউজার ফ্রেন্ডলি ল্যান্ডিং পেজের মাধ্যমে আপনি এই কোয়ালিটি স্কোর প্রাথমিক ভাবে অনেক বৃদ্ধি করতে পারবেন। এছাড়া গুগুলে টেক্সট বোল্ড করার মাধ্যমেও আপনি চাইলে বিজ্ঞাপনকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে পারেন।

আপনার বিজ্ঞাপনের পেছনে খরচ নির্ভর করে কোয়ালিটি স্কোরের উপরে

আগেই বলেছিলাম গুগুলের কাছে টাকার চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হল কোয়ালিটি স্কোর। ধরুন একই কিওয়ার্ডের জন্য আপনি ক্লিক প্রতি ১০ টাকা করে দিতে প্রস্তুত। কিন্তু আপনার কম্পিটিটর ক্লিক প্রতি মাত্র ৫ টাকা করে দিতে প্রস্তুত। এখন আপনি হয়ত ভাবতে পারেন যে আপনার বিজ্ঞাপনটি যেহেতু বেশি দামী তাই এটাই প্রথমে প্রদর্শিত হবে।

পিপিসি বা গুগুলের ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপনে কোয়ালিটি স্কোর কীভাবে বৃদ্ধি করবেন, জানতে ব্লগটি পড়ুন ..

কিন্তু আদতে আপনার কম্পিটিটর যদি ভালো মানের বিজ্ঞাপন দেয় অর্থাৎ কিওয়ার্ডের সাথে অনেক বেশি সঙ্গতিপূর্ণ হয়ে থাকে তাহলে আপনার বিজ্ঞাপনের আগে তার বিজ্ঞাপন দেখানো হবে।

এছাড়াও এই সিপিসি অর্থাৎ ক্লিক প্রতি টাকা যদি আপনি গুগুললে অটো নির্ধারিত করে দিতে দেন, তাহলে দেখা যাবে এক্ষেত্রে আপনার বিজ্ঞাপনের কোয়ালিটি স্কোর ভালো হলে আপনার থেকে কম টাকা রাখা হবে। একই ভাবে আপনার কোয়ালিটি স্কোর কম হলে আপনার কাছ থেকে ক্লিক প্রতি মূল্যও কিঞ্চিৎ বৃদ্ধি পেতে পারে।

কীভাবে আপনি কোয়ালিটি স্কোর বৃদ্ধি করতে পারেন?

আমাদের এই পুরো আর্টিকেল জুড়ে আমরা বারবার বিভিন্ন সময়ে বলেছি কোয়ালিটি স্কোর বৃদ্ধি করার বিভিন্ন উপায় সম্পর্কে। যদি আপনি মিস করে থাকেন ,তাহলে আমাদের এই আর্টিকেলটি আবার ভাল করে পড়ুন। তবে আপনার সুবিধার জন্য আমরা বিজ্ঞাপন কোয়ালিটি স্কোর বৃদ্ধি করার সবগুলো উপায় একত্র করে নিচে বর্ণনা করছিঃ

আপনার বিজ্ঞাপনটি প্রথম যতজনের কাছে পৌঁছেছে, তাদের মধ্যে কত পার্সেন্ট ইউজার আপনার বিজ্ঞাপনটিতে ক্লিক করেছেন এটা গুরুত্বপূর্ণ। আর তাই এমন ভাবে বিজ্ঞাপনটি সাজিয়ে নিন যাতে করে আপনার বিজ্ঞাপনটি অনেক বেশি আকর্ষণীয় হয় এবং ইউজাররা বেশি ক্লিক করে এই বিজ্ঞাপনে।

দ্বিতীয়ত আপনার বিজ্ঞাপনটি সংগতিপূর্ণ হতে হবে। কিওয়ার্ডের সাথে মিল নেই এমন বিজ্ঞাপন কখনই দেখানো হবে না। আর তাই চেষ্টা করবেন আপনার বিজ্ঞাপন এবং ল্যান্ডিং পেজ কিওয়ার্ডের সাথে যাতে করে সামঞ্জস্য বজায় রাখে।

আপনার ল্যান্ডিং পেজে ইউজার যেয়ে যদি সাথে সাথে পেজটি কেটে দেয় অর্থাৎ আপনার ল্যান্ডিং পেজে বেশীক্ষণ না থাকে তাহলে গুগুল মনে করবে আপনার বিজ্ঞাপনের পণ্যটি ইউজারের কাছে মোটেও আকর্ষণীয় কিছু নয়। আর তাই বিজ্ঞাপনের অন্যান্য ধাপের মতই আপনার ল্যান্ডিং পেজে যদি ভালো হয় এবং পণ্যটি আকর্ষণীয় হয় তাহলে আপনার কোয়ালিটি স্কোরও বৃদ্ধি পাবে।

পরিশেষে এটা অবশ্য প্রত্যেক বিজ্ঞাপন দাতাকে বুঝে নিতে হবে যে গুগুলের নির্ধারিত এই কোয়ালিটি স্কোর খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর তাই আপনি যদি নিজে বিজ্ঞাপন না দিয়ে অন্য কোন ফ্রিল্যান্সারদের দিয়েও বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন, তাহলে তাদের দেয়া বিজ্ঞাপনের কোয়ালিটি স্কোর চেক করে নিবেন। এই স্কোর যত বেশি হাই রাখতে পারবেন আপনার বিজ্ঞাপন তত বেশি কার্যকর হয়ে উঠবে।

এছাড়া আপনি যদি ফ্রিল্যান্সার হয়ে থাকেন তাহলে প্রথমে অবশ্যই সরকার প্রদত্ত ফ্রিল্যান্সারদের আইডি সংগ্রহ করে নিন। এছাড়া যখনই আপনার ক্লায়েন্টের বিজ্ঞাপন দিবেন তখন তাদেরকে বিজ্ঞাপনের কোয়ালিটি স্কোর সম্পর্কে জানিয়ে নিন এবং এই স্কোর যতটা সম্ভব বেশি রাখতে চেষ্টা করুন।

পিপিসি বা গুগুলের ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপনে কোয়ালিটি স্কোর কীভাবে বৃদ্ধি করবেন, জানতে ব্লগটি পড়ুন ..

তবে একটা বিষয় আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে, আর সেটা হল ফলাফল হল সবচাইতে প্রধান লক্ষ্য। আপনি যদি বিজ্ঞাপন থেকে ভালো ফলাফল পেতে থাকেন তাহলে এর কোয়ালিটি স্কোর নিয়ে অত বেশি সময় ব্যয় না করলেও হবে। পরে দেখা যাবে কোয়ালিটি স্কোর নিয়ে অত সময় ব্যয় করেছেন যে আপনার পণ্য অথবা ল্যান্ডিং পেজের দিকেই ঠিকমত মনোযোগ দেয়া হয়ে উঠেনি।   

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top