এই তৃতীয় চ্যাপ্টারে ফেসবুকের এড ম্যানেজার সম্পর্কে আমরা বিস্তারিত কথা বলব। আপনি যদি এর আগে কখনো ফেসবুক বিজ্ঞাপন না দিয়ে থাকেন, তাহলেও আশাকরি এই চ্যাপ্টার শেষে আপনি খুব চমৎকার ভাবে একটি সফল এড ক্যাম্পেইন চালু করতে পারবেন। বর্তমানে যে ডিজিটাল মার্কেটিং পদ্ধতিগুলো ফলো করে অনেকেই সফল হচ্ছেন তার মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এবং ফেসবুকে বিজ্ঞাপন অন্যতম।  

ফেসবুক এড ম্যানেজার দিয়ে আপনি কি করতে পারবেন?

প্রথমেই বলতে হয় যে ফেসবুক এড ম্যানেজার দিয়ে অবশ্যই আপনি একটি বিজ্ঞাপন চালু করতে পারবেন। তবে এড ম্যানেজার দিয়ে এছাড়াও আপনি যা করতে পারবেনঃ

  • ফেসবুক বিজ্ঞাপন দেয়া
  • একটি বিজ্ঞাপন সেট তৈরি করে বারবার সেটা ব্যবহার করতে পারবেন
  • বিজ্ঞাপনের বিডিং নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন অর্থাৎ আপনি একেকটি ক্লিক, মেসেজ অথবা লাইকের জন্য ঠিক কতটুকু পর্যন্ত খরচ করতে চান।
  • ভিন্ন ভিন্ন অডিয়েন্সের উদ্দেশ্যে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে পারবেন
  • আপনার এড ক্যাম্পেইনগুলোকে আরো অনেক বেশি কার্যকর করে তুলতে পারবেন
  • কাছাকাছি কয়েকটি বিজ্ঞাপন সেট তৈরি করে কোনটা বেশি কার্যকর সেটা নির্ণয় করতে পারবেন
  • আপনার ক্যাম্পেইনগুলো কতটা কার্যকর হচ্ছে সেটার ট্র্যাক রাখতে পারবেন
AliExpress.com Product – FXM Bluetooth Smart Watch Men for Iphone Phone for Huawei Samsung Android Support 2G SIM TF Card Camera Digital watch Men

কীভাবে ব্যবহার করবেন ফেসবুক এড ম্যানেজার?

ফেসবুক এড ম্যানেজার ব্যবহার করার আগে তো আপনাকে এড ম্যানেজারে ঢুকতে হবে, তাই না? আসুন তাহলে দেখে নেই কীভাবে আপনি ফেসবুক এড ম্যানেজারে ঢুকবেনঃ

১। https://www.facebook.com/ads/manager এই লিংকে গেলে আপনি খুব সহজেই ফেসবুক এড ম্যানেজারে ঢুকে যেতে পারবেন। পরবর্তীতে সহজে কাজ করার জন্য চাইলে এই লিংক বুকমার্ক করে রেখে দিতে পারেন।

২। আপনি এডমিন আছেন এমন যে কোন পেজের একদম উপরের ডান দিকের কর্নারে ড্রপ ডাউন মেন্যুতে  Business Manager লেখা দেখতে পাবেন। সেখানে ক্লিক করার মাধ্যমে আপনি এড ম্যানেজার একাউন্টে প্রবেশ করতে পারবেন।

৩। মোবাইল এপ এর মাধ্যমেও আপনি চাইলে ফেসবুক এড ম্যানেজার ব্যবহার করতে পারবেন। ফেসবুক এড ম্যানেজার এপস ডাউনলোড করার লিংকঃ https://www.facebook.com/business/news/ads-manager-app

আপনি যদি এর আগে কখনো এড ম্যানেজার ব্যবহার না করে থাকেন তাহলে প্রাথমিক অবস্থায় ম্যানেজারের কোথায় কি রয়েছে সেটা বুঝে উঠতে পারা আপনার জন্য বেশ কিছুটা কষ্টকর হয়ে উঠতে পারে। তবে চিন্তার কিছু নেই আমরা একটি ছবির মাধ্যমে আপনাকে বুঝিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছি ফেসবুক এড ম্যানেজারের মধ্যে কোন অপশনটি আপনি কোথায় পাবেন।

ফেসবুক এড ম্যানেজার ব্যবহার করার আগে তো আপনাকে এড ম্যানেজারে ঢুকতে হবে

১। আপনার মূল মেন্যু

২। এখান থেকে আপনি নতুন ক্যাম্পেইন তৈরি করতে পারবেন

৩। পুরো একাউন্টের একটি ওভারভিউ পাবেন এখান থেকে

৪। আপনার ক্যাম্পেইনগুলো এখান থেকে দেখতে পারবেন একসাথে

৫। আপনার তৈরি করা এড সেটগুলো এখান থেকে দেখতে পাবেন

৬। এডগুলো এখান থেকে দেখতে পারবেন

৭। কলাম

৮। ক্যাম্পেইনগুলো আলাদা ভাবে বিস্তারিত দেখতে পারবেন

৯। পুরো ক্যাম্পেইনের রিপোর্টিং পাবেন এখান থেকে

১০। ক্যাম্পেইনের ফলাফল দেখতে পারবেন এখান থেকে

১১। বিজ্ঞাপনে কত খরচ হল সেটা এখান দেখাবে

এখানে অনেক অপশন দেখে প্যানিক হওয়ার কিছু নেই। কিছুদিনের ব্যবহারের মাধ্যমেই আপনি এই পুরো সিস্টেমের সাথে পরিচিত হয়ে উঠবেন। আপনার সব ধরণের ক্যাম্পেইন, কোথায় কত খরচ হল, পিক্সেল বিজ্ঞাপনের রেকর্ড সহ যাবতীয় সব ধরনের তথ্যই আপনি এখান থেকে পেয়ে যাবেন।

এড ম্যানেজারের কোথায় কি অপশন রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে আশাকরি একটু বুঝতে পেরেছেন। এবার চলুন তাহলে যাওয়া যাক আপনার বহুল প্রতীক্ষিত প্রথম বিজ্ঞাপন ক্যাম্পেইন করতে। ফেসবুক মার্কেটিং এর প্রফেশনাল হওয়ার প্রথম ধাপটা ঠিক এখান থেকেই শুরু। প্র্যাকটিস এবং বিস্তারিত বুঝার মাধ্যমে আপনি ধীরে ধীরে একজন সফল ফেসবুক মার্কেটিং এক্সপার্ট হয়ে উঠবেন।

ফেসবুক বিজ্ঞাপনকে আরো বেশি কার্যকর করে তুলতে পারবেন যদি আপনি নিজের ফ্যান পেজকে অনেক বেশি সুন্দর করে সাজিয়ে নিতে পারেন। জেনে নিন কীভাবে ফেসবুক ফ্যান পেজ আরো আকর্ষণীয় উপায়ে তৈরি করা যায়।

আপনার প্রথম ফেসবুক বিজ্ঞাপন ক্যাম্পেইন চালু করবেন যেভাবে

প্রথম ক্যাম্পেইনটি চালু করার জন্য “campaigns” লেখা একটি ট্যাব দেখবেন, সেখানে ক্লিক করুন। সেখানে সবুজ রঙের একটি বাটন দেখবেন “+Create” লেখা। সেটাতে ক্লিক করুনঃ

আপনার ক্যাম্পেইন চালু করার জন্য যাবতীয় গাইডলাইন ফেসবুকেই খুব সুন্দর করে দেয়া আছে। আর সবকিছু এত সহজ বলেই ফেসবুক বিজ্ঞাপনের চাহিদা প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আপনি যখন ক্যাম্পেইন ক্রিয়েট বাটনে ক্লিক করবেন তখন নিম্নের পেজটি দেখবেনঃ

এই পেজে প্রথমেই এতকিছু দেখে আপনি হয়ত একটু প্যানিক হয়ে যেতে পারেন যে কীভাবে কি করব ভেবে! তবে ভয়ের কিছু নেই, পুরো ব্যাপারটি খুবই সহজ এবং আমরা আপনাকে সেই প্রসেসটি খুব সহজেই বুঝিয়ে দিব।

প্রথমেই ঠিক করে নিন আপনি কি উদ্যেশ্যে বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন

আগেই বলছিলাম যে ফেসবুকের বিজ্ঞাপন দেয়ার পুরো প্রসেসটা তারা এমন ভাবে সাজিয়েছে যাতে আপনার জন্য সেটা সর্বচ্চ কার্যকর হয়। আপনি কি ভিডিওতে ভিউ চাচ্ছেন, পেজের পোস্টে লাইক কমেন্ট চাচ্ছেন, নিজের ওয়েবসাইটে ট্রাফিক নিতে চাচ্ছেন অথবা চাচ্ছেন যে সবাই আপনার পন্য সম্পর্কে ফ্যানপেজে মেসেজ করুক!

যে কোন উদ্যেশ্যেই আপনি নিজের বিজ্ঞাপন ক্যাম্পেইন সাজিয়ে নিতে পারবেন। উল্যেখ্য যে অনেকেই এখন ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করেন।  

ফেসবুকে বর্তমানে যে ধরণের বিজ্ঞাপনের অপশন পাবেন সেগুলো নিম্নরূপঃ

  • আপনার ব্র্যান্ড সম্পর্কে সবাইকে জানানো
  • নির্দিষ্ট এলাকায় বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা
  • পোষ্ট অথবা ভিডিও অনেক মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারা
  • নিজের ওয়েবসাইটে ট্রাফিক নিয়ে যাওয়া
  • এপস ইন্সটল করানো 
  • ভিডিও ভিউ এর জন্য বিজ্ঞাপন প্রদর্শন   
  • বিক্রয়ের জন্য বিজ্ঞাপন প্রদর্শন
  • কনভার্শন
  • পণ্যের ক্যাটালগ থেকে বিক্রয়ের জন্য পোস্ট
  • ফেসবুক স্টোরে ভিজিটর নিয়ে যাওয়া
  • পন্য সম্পর্কে কাস্টোমারের মেসেজ

প্রথম ধাপঃ ক্যাম্পেইনের উদ্দেশ্য নির্ধারণ করুন 

আপনি যেই ক্যাম্পেইন অবজেক্টিভ সিলেক্ট করেন না কেন, সেটা আপনার আসলেই কাজে লাগছে কি না সেটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। হয়ত দেখা যাচ্ছে আপনার প্রয়োজন ফেসবুক ভিডিও মার্কেটিং, কিন্তু আপনি ফ্যান পেজে লাইক এর জন্য ফেসবুক বুস্ট করে দিলেন। তাই প্রথমেই বুঝতে হবে আপনার জন্য বর্তমানে কোন অবজেক্টিভটা সঠিক।  

আপনি যদি নিজের ওয়েবসাইট প্রোমট করতে চান, সেক্ষেত্রে কিন্তু লাইক বা অনেক বেশি মানুষের কাছে পৌঁছানোর বুস্ট করে আপনার কোন লাভ হবে না। আপনাকে নিজের প্রয়োজন অনুযায়ী সঠিক অবজেক্টিভ সিলেক্ট করতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপঃ আপনার ক্যাম্পেইনকে একটি আলাদা নাম দিয়ে নিন  

হয়ত প্রথমে আপনার মনে হতে পারে এটা তো একদমই সহজ। একটি নাম তো দিয়ে দেয়াই যায়। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে মনে রাখতে হবে আপনার প্রথম চার পাঁচটি ক্যাম্পেইনের ক্ষেত্রে তেমন কোন সমস্যা হবে না।

তবে আপনার একাউন্টে যখন একশ দুইশ ক্যাম্পেইন চলবে তখন নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যর জন্য সেই ক্যাম্পেইনটি খুঁজে পেতে আপনার খুবই সমস্যা হবে। আর তাই সহজেই খুঁজে বের করতে পারবেন এমন একটি নাম দিয়ে নিন।

যেমন আপনি যদি কোন ক্লায়েন্টের জন্য ক্যাম্পেইন করেন, তাহলে সেই ক্লায়েন্টের নামে ক্যাম্পেইন খুলতে পারেন। এভাবে আপনি নিজের ক্যাম্পেইনের উদ্দেশ্য অনুযায়ীও ক্যাম্পেইনের নাম নির্ধারণ করতে পারেন। ক্যাম্পেইনের নাম নির্ধারণের সময় আপনি চাইলে বাজেট লিমিট করে দিতে পারেন।

 A/B test এর মাধ্যমে আপনি চাইলে অডিয়েন্স ছাড়াও অন্যান্য আরো কিছু ভিন্ন রেখে একই ক্যাম্পেইনের মধ্যে টেস্ট করে দেখতে পারবেন।

তৃতীয় ধাপঃ কোন ধরণের অডিয়েন্সের কাছে বিজ্ঞাপন দেখাতে চান সেটা সেট করে নিন

ফেসবুকের বিজ্ঞাপন দিতে গেলে আপনি বেশ কিছু পাওয়ারফুল অপশন খুঁজে পাবেন, যেগুলোর সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি নিজের পছন্দ অনুযায়ী অডিয়েন্সের কাছে বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে পারবেন।

এই বিভিন্ন ধরণের অডিয়েন্স টাইপের উপরে আরো বিস্তারিত আলোচনা আমরা এই সিরিজের চাপ্টার ৬ এ করব। তবে এখন আসুন দেখে নেই কীভাবে একদম ব্যাসিক আইডিয়া নিয়েও আপনি খুব চমৎকার ভাবে একটি ক্যাম্পেইনের অডিয়েন্স সিলেক্ট করতে পারবেন।

আর আপনার ক্যাম্পেইনের অডিয়েন্স সেকশনটি নিম্নরূপ হবেঃ

আপনি লোকেশন, বয়স, অডিয়েন্সের ইন্টারেস্ট এবং বাজেট অনুযায়ী আনুমানিক কতজনের কাছে বিজ্ঞাপন পৌঁছাতে পারবেন সেটা ক্যাম্পেইনের এই পেজে দেখতে পারবেন। অডিয়েন্স ঠিক কোন এলাকায় আছে এবং কি পছন্দ করে এইসবের উপর ভিত্তি করে আপনি অডিয়েন্স সেট করে দিতে পারবেন। এই পদ্ধতিকে বলা হয় ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং, বর্তমানে এটা খুবই কার্যকরী।

প্রয়োজন অনুযায়ী টার্গেট অডিয়েন্স সেট করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ধরুন আপনি অনলাইনে ঢাকায় মিষ্টির বিজনেস করবেন, আর তাই আপনার অডিয়েন্স এমন ভাবে সেট করতে হবে যারা কি না ঢাকায় থাকে এবং একই সাথে মিষ্টি খুব পছন্দ করে।

চতুর্থ ধাপঃ কোন প্লাটফর্ম এবং ফেসবুকের কোন যায়গায় আপনি বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে চান সেটা সেট করে নিন

এমনিতেই ফেসবুকে ডিফল্ট সেটিংস এ অটোমেটিক প্লেসমেন্ট থাকে, এভাবে আপনাকে কোন কিছু সেট করে দিতে হবে না। ফেসবুক থেকেই অটোমেটিক ভাবে আপনার বিজ্ঞাপন যেখানে বেশি কার্যকর হবে সেখানে প্রদর্শন করবে। তবে আপনি চাইলে এই বিজ্ঞাপন দেখানো জায়গাগুলো এডিট করতে পারবেন। ফেসবুক বিজ্ঞাপনে যে জায়গাগুলোতে আপনি বিজ্ঞাপন দেখাতে পারবেন সেগুলো নিম্নরূপঃ

  • ফেসবুক ফিড
  • ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল
  • ভিডিওর মধ্যে
  • ফেসবুকের ডান সাইডের কলামে
  • ফেসবুক মার্কেটপ্লেসে
  • ফেসবুক স্টোরিস এ
  • ইন্সটাগ্রামের ফিড এবং স্টোরিস
  • মেসেঞ্জারে স্পনসর মেসেজের মাধ্যমে

যেভাবে আপনি এড প্লেসমেন্ট এডিট করতে পারবেনঃ

যদি আপনি একদম প্রথমবারের মত বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন আমাদের সাথে, তাহলে আমাদের পরামর্শ হল প্রথমবারের জন্য আপনি অটোমেটিক প্লেসমেন্ট সিলেক্ট করে দিন।

তবে আপনি যদি চান যে নিজের মত করে প্লেসমেন্ট সিলেক্ট করবেন, তাহলে আমরা আপনাকে অবশ্যই সাহায্য করব। আপনার উদ্যেশ্য অনুযায়ী যেখানে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করলে সবচাইতে বেশি কার্যকর হবে সেটা নিম্নে বিস্তারিত বর্ণনা করা হলঃ

  • ব্র্যান্ড সম্পর্কে মানুষকে জানাতে চাইলেঃ ফেসবুক এবং ইন্সটাগ্রাম
  • বেশি লাইক এবং কমেন্ট পেতে চাইলেঃ ফেসবুক এবং ইন্সটাগ্রাম
  • ভিডিও এর ভিউ পেতে চাইলেঃ ফেসবুক, ইন্টাগ্রাম এবং অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক
  • এপস ইন্সটল করতে চাইলেঃ ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম এবং অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক
  • ওয়েবসাইটে ট্রাফিক পেতে চাইলেঃ ফেসবুক এবং অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক

পঞ্চম ধাপঃ বিজ্ঞাপনের বাজেট এবং বিডিং

ফেসবুক বিজ্ঞাপনের বাজেট এবং বিডিং সিস্টেমটা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি টপিক, এই নিয়ে আমরা ৭ম চাপ্টারে আলোচনা করব। তবে প্রথমবারের ফেসবুক বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য আপনি অটোমেটিক বিডিং অপশনটি সিলেক্ট করে নিন।

৬ষ্ঠ ধাপঃ অডিয়েন্সকে আপনি বিজ্ঞাপন যেভাবে দেখাতে চান

ফেসবুকের অডিয়েন্সের কাছে আপনি যেভাবে বিজ্ঞাপনটি দেখাতে চান সেটা সিলেক্ট করে নিন। আপনার ইমেজ, ভিডিও এবং যে লেখাটি অডিয়েন্সকে দেখাতে চান সেটা আকর্ষণীয় ভাবে লিখে দিন। মনে রাখবেন এই লেখাটি যত সুন্দর করে এবং আকর্ষণীয় ভাবে লিখতে পারবেন আপনার বিজ্ঞাপন তত বেশি কার্যকর হবে।

এখানে আপনি দুইটি অপশন পাবেন, আপনার ইতোপূর্বের কোন একটি পোষ্ট দিয়ে বুস্ট দিতে পারবেন অথবা নতুন করে একটি পোষ্ট লিখে নিতে পারবেনঃ

আপনি পোষ্ট সিলেক্ট করে অথবা তৈরি করে নিয়ে বুস্ট করে দিন। বেস হয়ে গেল আপনার প্রথমবারের বিজ্ঞাপন দেয়া। দেখেছেন ব্যাপারটি আপনি যতটা কঠিন ভেবেছিলেন ততটা কঠিন মোটেও নয় বরং বেশ সহজ একটি কাজ। শুধুমাত্র প্র্যাকটিস এবং পুরোপুরি সিস্টেমটি বুঝতে পারলে অনেক বেশি কার্যকর ভাবে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন দিতে পারবেন।

পরবর্তী চ্যাপ্টারে আমরা আলোচনা করব বিভিন্ন ধরণের বিজ্ঞাপন এবং সেগুলো দিয়ে আপনি কীভাবে আরো বেশি কার্যকর ভাবে মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবেন সেটা নিয়ে। আর আপনি যে শুধুমাত্র ফেসবুক মার্কেটিং শিখতে পারবেন তা নয় বরং ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কেও আমাদের ওয়েবসাইটে অনেক কিছু জানতে পারবেন।

লেখক পরিচিতিঃ
MD.ARIFUR RAHMAN

Amazon affiliate marketer in Bangladesh

Digital Marketing Expert | SEO Expert | Digital Marketing Trainer |
PPC Expert | Social Media Specialist | Consultant । Affiliate Marketer

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

1 thought on “খুব সহজেই ফেসবুক বিজ্ঞাপন সেট করুন (ফেসবুক এড ম্যানেজার গাইড)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Back to Top