বর্তমান ডিজিটাল মার্কেটিং এর যুগে বিজ্ঞাপনের ধরন সব পাল্টে রূপ নিচ্ছে নানা আধুনিক রূপে। আর বিশেষ করে আপনি যদি কোন ই-কমার্স সাইটের মালিক হয়ে থাকেন তাহলে আপনার বিভিন্ন ধরনের পণ্যের জন্য বিজ্ঞাপনের মধ্যেও নিয়ে আসতে হবে নানা আধুনিকতা।

উপরে কোর্সটি কিনতে ক্লিক করুন

কেননা সময়ের হাওয়ায় গা ভাসিয়ে নানান চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনের দিকেই সবাই এখন উৎসুক হয়ে আছে। এর মাঝে নিজের স্বকীয়তা ধরে রাখতে চাইলে এর মধ্যেই আপনাকে আরেকটু ভালো কিছু করার প্রয়াস থাকতে হবে।

ই-কমার্সের জন্য সবচাইতে কার্যকরী বিজ্ঞাপনঃ গুগুল মার্চেন্ট একাউন্ট এবং শপিং এড

আজ আমরা ঠিক তেমনই একটি বিজ্ঞাপন নিয়ে কথা বলতে যাচ্ছি। শপিং এড নামক পিপিসি ক্যাম্পেইনের এই শক্তিশালী বিজ্ঞাপনের ধরন সম্পর্কে আপনি যদি বেশ কিছুটা অভিজ্ঞ হয়ে উঠেন তাহলে আশাকরি আপনার পণ্য বিক্রয় নিয়ে আর নানাবিধ জটিলতায় ভুগতে হবে না।

তবে এক্ষেত্রে একটি বিষয় প্রথমেই মনে রাখতে হবে, আর সেটা হল যে কোন ধরনের বিজ্ঞাপনই আপনি যদি রিপোর্ট এনালাইসিস এর মাধ্যমে ডেটা ড্রিভেন পদ্ধতিতে দিতে পারেন তাহলে সেটা অন্যান্য বিজ্ঞাপন থেকে অনেক বেশি কার্যকরী হয়ে উঠবে।

তাহলে আর দেরি না করে আসুন দেখি শপিং এড এর এই ফরম্যাট আমাদের বিজ্ঞাপন জগতে নতুন কি চমক নিয়ে এসেছে। শপিং বিজ্ঞাপনের মূলত তিনটি অংশ রয়েছে আর প্রত্যেকটি অংশ নিয়েই আমরা বিস্তারিত কথা বলব।

** ফিড সেটআপ এন্ড ম্যানেজমেন্ট

** ক্যাম্পেইন সেটআপ

** বিজ্ঞাপন অপটিমাইজেশন

ফিড সেটআপ এন্ড ম্যানেজমেন্ট

যেহেতু এই ধরনের বিজ্ঞাপন আদতে আপনার দেয়া তথ্য উপাত্তের উপরে নির্ভর করে কাজ করে থাকে তাই এই বিজ্ঞাপনের সফলতা অনেকাংশেই নির্ভর করে আপনার ফিড সেটআপ এর উপর। এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে এই ফিড কি এবং এটা আপনি কিভাবে সেটআপ করবেন?

আদতে এই ফিড হল আপনার পণ্য সম্পৃক্ত যাবতীয় ইনফরমেশন, যা আপনি আপনার গুগুল মার্চেন্ট একাউন্টে আপলোড করবেন। এখন যেহেতু গুগুলের এই সিস্টেম পুরোপুরি অটোমেটিক ভাবে চলতে থাকে, তাই আপনি যদি একটু কৌশল অবলম্বন করার মাধ্যমে এই পণ্যগুলো আপলোড করেন তাহলে আপনার জন্য সেটা বাড়তি সুবিধা প্রদান করবে।

ই-কমার্সের জন্য সবচাইতে কার্যকরী বিজ্ঞাপনঃ গুগুল মার্চেন্ট একাউন্ট এবং শপিং এড

গুগুল মার্চেন্ট একাউন্ট! নামটা শুনতেই বেশ অন্যরকম শুনাচ্ছে? হ্যাঁ! আদতে পুরো বিষয়টাই বেশ চমৎকার। গুগুল মার্চেন্ট একাউন্টে আপনি সেই স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী আপনার পণ্য আপলোড করবেন এবং গুগুলে সেই পণ্য রিলেটেড কোন কিছু সার্চ দেয়া হলে আপনার পণ্য অটোমেটিক ভাবে গুগুল সার্চে দেখাতে পারে।

এখানে এসইও এর মতই একটি বিষয় রয়েছে। আপনি ঠিক যেমন নিজের কন্টেন্ট ভালো ভাবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের মাধ্যমে গুগুল সার্চ রেজাল্টের মধ্যে প্রথমে নিয়ে আসতে পারবেন। ঠিক তেমন ভাবেই আপনি যদি মার্চেন্ট একাউন্টের ফিডগুলো ভালোভাবে সেটআপ করতে পারেন তাহলে দেখবেন গুগুল সার্চের মাধ্যমে আপনার পণ্যও অনলাইনে দেখাচ্ছে।

গুগুলের যেমন মার্চেন্ট একাউন্ট রয়েছে, ঠিক তেমনই আরেকটি জনপ্রিয় “সার্চ ইঞ্জিন বিং” এর মধ্যেও রয়েছে এমনই মার্চেন্ট একাউন্ট তৈরি করে পণ্য আপলোড করার বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা। তবে আপনার এই ফিড সার্চ ইঞ্জিনের মার্চেন্ট একাউন্টে প্রথমে এপ্রুভ হতে হবে। একবার এপ্রুভ হয়ে গেলেই আপনার পণ্য সার্চ রেজাল্টের মধ্যে চলে আসতে পারে।

ফিড প্রোভাইডার

এখানে মজার ব্যাপার হল আপনার কাছে যদি গুগুল মার্চেন্ট একাউন্টের ফিড প্রোভাইড করার বিষয়টি জটিল মনে হয় তাহলে আপনি চাইলেই সেটা থার্ড পার্টির মাধ্যমে করে নিতে পারবেন। বর্তমানে বেশ জনপ্রিয় ফিড প্রোভাইডার রয়েছে মার্কেটে যারা আপনার পণ্য অনুযায়ী ফিড তৈরি করে একটি এক্সএমএল ফাইল তৈরি করে দিবে। এক্ষেত্রে আপনাকে আর কিছুই করতে হবে না শুধুমাত্র আপনি এই ফাইলটি নিজের গুগুল মার্চেন্ট একাউন্টে আপলোড করে দিবেন।

ই-কমার্সের জন্য সবচাইতে কার্যকরী বিজ্ঞাপনঃ গুগুল মার্চেন্ট একাউন্ট এবং শপিং এড

তবে এটা আপনি কখন করবেন? যদি আপনার কোম্পানিটি ছোট হয় এবং আপনার হাতে জথেস্ত পরিমাণ সময় থাকে তাহলে থার্ড পার্টির মাধ্যমে ফিড প্রোভাইড করার দরকার নেই।

অপরদিকে আপনি যদি একটি মোটামুটি বড় কোম্পানির মালিক হন অথবা আপনার কাছে জথেস্ত পরিমাণে পণ্য থাকে যেগুলোর একটি একটি করে ফিড আপলোড করতে আপনার অনেক সময় লেগে যাবে, সেক্ষেত্রে আপনি কোন থার্ড পার্টির মাধ্যমে সল্যুশন নিতে পারেন।

ক্যাম্পেইন সেটআপ

এখন আসুন ফিরে আসি আমাদের বিজ্ঞাপন সেকশনে। আমরা ইতোমধ্যেই জেনে গিয়েছি যে যখনই গুগুলে পিপিসি বা ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপন দিতে যাব তখনই আমরা একটি ক্যাম্পেইন সেটআপ এর মাধ্যমে করতে হবে। আসুন তাহলে জেনে নেই গুগুল শপিং এড বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য আপনি ক্যাম্পেইন সেটআপ কিভাবে করবেন।

ই-কমার্সের জন্য সবচাইতে কার্যকরী বিজ্ঞাপনঃ গুগুল মার্চেন্ট একাউন্ট এবং শপিং এড

এখানে আপনার কয়েকটি বিষয় বিবেচনায় রাখতে হবে। প্রথমত শুধুমাত্র একটি অটোমেটিক ক্যাম্পেইনের উপরে কখনই ভরসা করে বসে থাকবেন না। হ্যাঁ! গুগুল হয়ত অটোমেটিক হওয়ার কারণে সেই ক্যাম্পেইন থেকে প্রাথমিক ভাবে আপনার ভালো সেল হতে পারে তবে আপনি যদি ম্যানুয়াল ভাবে এই রিপোর্ট এনালাইসিস না করতে পারেন তাহলে পরবর্তীতে যে কোন সময়ই ছোটখাটো কারণে আপনার ক্যাম্পেইন থেকে লস হতে পারে।

দ্বিতীয়ত আপনি যখনই ক্যাম্পেইনের বিডিং করতে যাবেন তখন কখনই নির্দিষ্ট একটি পণ্যের ক্ষেত্রে বিডিং করবেন না বরং আপনি একটি এড গ্রুপ বা কয়েকটি পণ্যের সমন্বয়ে তৈরি করা একটি প্রোডাক্ট গ্রুপের উপরে বিডিং করবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে নির্দিষ্ট কোন একটি পণ্যের উপরে ভরসা করে বসে থাকতে হবে না।

বরং পুরো বিষয়টি আপনার নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং একই সাথে মানুষের কাছেও বেশ কয়েকটি পণ্যের বিজ্ঞাপন গেলে একটির কারণে অন্যগুলোর এভারেজ ভ্যালু কমে আসবে।

এছাড়া আরেকটি বিষয় হল্ম আপনি কাস্টোমারের সার্চ অনুযায়ী স্বাভাবিক ক্যাটাগরির মাধ্যমে ক্যাটালগ এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিবেন। এক্ষেত্রে একজন কাস্টোমার একই সাথে যখন বেশ কয়েকটি পণ্য ক্যাটাগলের মধ্যে দেখে তখন আপনার সেল রেশিও বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

আবার আপনি যদি এই ধরনের বিজ্ঞাপন দেয়ার সময় কিছু নেগেটিভ কিওয়ার্ড একটিভ করে রাখতে পারেন তাহলে বেশ কিছু কিওয়ার্ড ফিলটার হয়ে যখন কাস্টোমার আপনার বিজ্ঞাপনটি দেখবে তখন আপনার পণ্য বিক্রয়ের সম্ভাবনা আরো অনেক বেশি বেড়ে যাবে।

এভাবে আপনি যদি বিভিন্ন গ্রুপ ক্যাটালগের মাধ্যমে আলাদা সার্চ রেজাল্ট একই ক্যাটালগে নিয়ে আসতে পারেন তখন আপনার সেই ক্যাটালগ যদি একটু সুন্দর ভাবে সাজিয়ে নেয়া যায় তাহলে বিক্রির সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে।

আর আপনাকে মনে রাখতে হবে এখন যেহেতু ইউজার বিভিন্ন ধরনের ডিভাইস ব্যবহার করে অনলাইনে ব্রাউজিং করে থাকে তাই আপনাকে সেই অনুযায়ী নিজের বিজ্ঞাপন সাজিয়ে নিতে হবে। আপনি যখনই নিজের বিজ্ঞাপনগুলো অপটিমাইজ করে নিবেন তখন এটা আপনার জন্য বেশ চমৎকার কার্যকরী হয়ে উঠবে।

অনগোইং অপটিমাইজেশন

এই বিষয়টি বেশ ইন্টারেস্টিং। কেননা দেখা যায় আপনি সাধারণত কোন বিজ্ঞাপন দিয়েই সেটার রেজাল্টের জন্য অপেক্ষা করেন। পরবর্তীতে রেজাল্ট এনালাইসিস করে সেটা কাজে লাগিয়ে নতুন বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন। কিন্তু এই শপিং এড এর মধ্যে আপনি ক্যাম্পেইন চলা কালিন সময়েই অনেক কিছু নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

এছাড়াও একটি বিজ্ঞাপন যেহেতু আপনি আবার ব্যবহার করতে পারবেন সেহেতু প্রয়োজনীয় এডিট করে সেটা আপনি আবার কাজে লাগাতে পারবেন। যদি কোন নির্দিষ্ট কিউরি থেকে আশানুরূপ ফলাফল না আসতে থাকে তাহলে সেটা আপনি বাদ দিয়ে সেখানে নতুন কিওয়ার্ড যোগ করে নিতে পারবেন।

ই-কমার্সের জন্য সবচাইতে কার্যকরী বিজ্ঞাপনঃ গুগুল মার্চেন্ট একাউন্ট এবং শপিং এড

এক্ষেত্রে আপনি অপটিমাইজের করার সময় নিম্নের এই অংশগুলো যদি আরেকটু মনোযোগের সাথে এবং রিসার্চ করে করেন তাহলে সেটা আপনার জন্য বেশ কার্যকরী ফলাফল প্রদান করতে পারবে। আর বিজ্ঞাপনের এই নির্দিষ্ট অংশগুলো হলঃ

** বিজ্ঞাপনের টাইটেল এবং ডিসক্রিপশন

** মূল্য

** ছবি

** পণ্য এবং গ্রুপ বিডিং

টাইটেল এবং ডিসক্রিপশন

আপনি যখনই বিজ্ঞাপনের টাইটেল এবং ডিস্ক্রিপশন যোগ করবেন তখন খেয়াল রাখবেন সেগুলো যেন আপনার পণ্যের সাথে ম্যাচ করে। এছাড়া এইখেত্রে কিওয়ার্ডের দিকেও মনযোগী হতে হবে আপনাকে। কেননা টাইটেল এবং ডিসক্রিপশনের উপর ভিত্তি করে আপনার বিজ্ঞাপনগুলো সার্চ রেজাল্টে দেখানোর অগ্রাধিকার পাবে। এক্ষেত্রে আপনার বিজ্ঞাপনের কোয়ালিটি স্কোরের একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে।

তবে এখানে আপনার কাছে প্রশ্ন আসতে পারে এই কিওয়ার্ড রিলেটেড তথ্য আপনি কোথায় পাবেন? এজন্য আপনাকে কিওয়ার্ড রিসার্চ সম্পর্কে আইডিয়া রাখতে হবে। এছাড়া গুগুলের বেশ কিছু ফ্রি টুলস আছে যেগুলোর মাধ্যমেও আপনি কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন।

পণ্যের মূল্য

পণ্যের মূল্যের বিষয়টি আপনার জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। কেননা পণ্যের দামের উপরেই আপনার ইনভেস্ট এবং সেখান থেকে লাভের বিষয়টি চলে আসে। আপনার যদি মনে হয় মূল্য অল্প রাখলে আপনার বেশি বিক্রয় হবে সেক্ষেত্রে আপনি মূল্য কমিয়ে রাখতে পারেন। তবে আবার আপনার পণ্য যদি প্রিমিয়াম কোয়ালিটি হয় সেক্ষেত্রে দামের ব্যাপারে ছার দেয়ার প্রশ্নই আসে না।

ভালো পণ্য মানুষ সবসময় খুঁজে বের করে হলেও ক্রয় করবে। সেক্ষেত্রে আপনার পণ্য যদি একটু দামিও হতে থাকে সেটা আপনার জন্য বেশ লাভ নিয়ে আসতে পারে।

পণ্যের ছবি

এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কেননা আপনাকে এমন কিছু ছবি ব্যবহার করতে হবে যেটা দেখে মানুষ আপনার পণ্য সম্পর্কে ধারনা পাবে এবং একইসাথে ছবিটি হতে হবে বেশ আকর্ষণীয়। আকর্ষণীয় ছবি ছাড়া কেউ হয়ত দেখা যাবে আপনার পণ্য ক্রয়ের ব্যাপারে আগ্রহী হয়ে উঠছে না।

ই-কমার্সের জন্য সবচাইতে কার্যকরী বিজ্ঞাপনঃ গুগুল মার্চেন্ট একাউন্ট এবং শপিং এড

বিজ্ঞাপনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল আকর্ষণ। আপনাকে মার্কেটিং এর মাধ্যমে মানুষকে আকর্ষণ করে পণ্য বিক্রয়ের ব্যাপারটাই আপনাকে আয়ত্ত করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি যত বেশি প্র্যাকটিস করবেন এবং নিজের ইউনিক সেলিং পয়েন্ট বের করে নিতে পারবেন ততই আপনি কার্যকরী বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন।

বিজ্ঞাপনের পণ্য গ্রুপ এবং গ্রুপ বিডিং

আপনার বিজ্ঞাপন অপটিমাইজেশনের এটা হল একদম ফাইনাল ধাপ। সাধারণত আমরা পিপিসি ক্যাম্পেইনের ক্ষেত্রে প্রত্যেকটি পেজ বা পণ্যের বিজ্ঞাপনে আলাদা ভাবে বিডিং করে থাকি। কিন্তু এক্ষেত্রে আপনাকে অনেকগুলো পণ্যের জন্য তৈরি করা ক্যাম্পেইন একসাথে করে গ্রুপ এড তৈরি করে নিতে হবে। পরবর্তীতে সেই গ্রুপ এডের উপর আপনি একসাথে বিডিং করবেন।

এক্ষেত্রে একটি পণ্য যদি সেল নাও হয়ে তবুও অন্য পণ্যের সেলের কারণে এই বিডিং এর উপরে তেমন কোন প্রভাব পড়বে না। বরং এভারেজে আপনার প্রত্যেকটি ভিউ বা ক্লিকের জন্য  যে খরচ হচ্ছে সেই ইনভেস্টমেন্ট রিটার্ন চলে আসে।

আশাকরি আমাদের এই পর্বের শপিং এড সম্পর্কে আপনি একটি প্রাথমিক ধারনা পেয়ে গেলেন। এখানে আপনাকে মনে রাখতে হবে যে পিপিসি বা গুগুলের বিজ্ঞাপন একটি বিশাল মার্কেট। এবং এই মার্কেটে আপনি হুট করেই এসে রাজত্ব করতে পারবেন না।

এখানে আপনার প্রয়োজন হবে নিয়মিত প্র্যাকটিস এবং অধ্যবসায়। আপনি যত বেশি মনোযোগ দিয়ে কাজ করবেন এবং নিয়মিত বিজ্ঞাপন প্রদান করবেন তত বেশি এই সম্পর্কে আপনার ধারনা বৃদ্ধি পাবে।

আপনি ফ্রিল্যান্সার হন অথবা নিজের কোম্পানির জন্য বিজ্ঞাপন দেন, সে যাই হোক না কেন, গুগুলের পাশাপাশি আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়াইয় বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রেও মনযোগী হন তাহলে বেশি ফলাফল পাবেন।

আপনার সুবিধার জন্য আমাদের রয়েছে একটি ফেসবুক বিজ্ঞাপন সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য সমৃদ্ধ টিউটোরিয়াল। এই আর্টিকেল সিরিজটি যদি আপনি পড়েন তাহলে ফেসবুক বিজ্ঞাপন সম্পর্কে আপনার সম্পূর্ণ ধারনা হয়ে যাবে এবং আপনি নিজেই একজন ফেসবুক বিজ্ঞাপন এক্সপার্ট হিসেবে কাজ করতে পারবেন।

গুগুল ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপন বা পিপিসি বিজ্ঞাপন সিরিজের বিগত কিছু আর্টিকেলঃ

** গুগুলের পিপিসি ক্যাম্পেইন বা ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপনে কীভাবে এড এক্সটেনশন ব্যবহার করবেন

**  পিপিসি ক্যাম্পেইন বা গুগুলের ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপন কীভাবে আরো আকর্ষণীয় লেখার মাধ্যমে উপস্থাপন করবেন

**   অডিয়েন্স টার্গেটিং (Audience Targeting)—পিপিসি (PPC) বা ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপন

** পিপিসি বা ক্লিক ভিত্তিক বিজ্ঞাপনের বাজেট নির্ধারন এবং বিডিং (Budget and Bidding on PPC)

** এড গ্রুপ কি এবং কীভাবে এড গ্রুপের মাধ্যমে পিপিসি বিজ্ঞাপনকে আকর্ষণীয় করে তোলা যায়?

**  কিওয়ার্ড কি এবং পিপিসি ক্যাম্পেইনে কীভাবে কিওয়ার্ড কাজ করে?

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top