ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান হোক অথবা অন্য কোন ইন্সটিটিউশন হোক, আজকাল সবাই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যাপারে গুরুত্ব অনুধাবন করে। আর তাই যে কোন বিষয়ে হোক সেটা ব্যাবসায়িক অথবা কোন সামাজিক কার্যক্রম, সবাই চায় সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশি বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে যেতে।

তবে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে সফল ভাবে নিজের উপস্থিতি জানান দেয়াটা অতটা সহজ না হলেও এর জন্য রয়েছে বেশ কিছু উপায়। আজ আমরা সেই উপায়গুলো নিয়েই আলোচনা করব।

তবে একটা ব্যাপার মাথায় রাখতে হবে, কেবল মাত্র বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে ফ্যান ফলোয়ার তৈরি করে কোন লাভ নেই। এর সাথে সাথে আপনাকেও একটু ভিন্ন ভাবে নিজেকে সবার কাছে উপস্থাপন করতে হবে। আর নিজেকে ভিন্ন ভাবে সবার কাছে পৌঁছে দিতে হলে যে আপনাকে অনেক কাঠখড় পোহাতে হবে তা নয়, বরং সামান্য কয়েকটি পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমেই সেটা সম্ভব। আসুন তাহলে জেনে নেই সোশ্যাল মিডিয়াতে ফ্যান ফলোয়ার বৃদ্ধির সহজ কিছু উপায় সম্পর্কেঃ 

১। নিয়মিত প্রতিযোগিতা রাখুন 

যে কোন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে নতুন মানুষদের কাছে পৌঁছে যাওয়া বেশ খানিকটাই সহজ। এখন প্রশ্ন আসতেই পারে যে, এই প্রতিযোগিতাগুলো কি ধরনের হতে পারে ? 

আপনি কোন প্রশ্ন করতে পারেন সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের মাধ্যমে আর এর সঠিক উত্তর কমেন্ট করার সাথে সাথে নিজেদের প্রোফাইলে শেয়ার দেয়ার মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে যে কেউ। যে কোন আকর্ষণীয় একটি পুরস্কার রাখুন, দেখবেন ফলাফল পাবেন আশানুরূপ। একটা ব্যাপার খেয়াল করে দেখবেন যে, পুরস্কারের সম পরিমাণ মূল্যে যদি বিজ্ঞাপন দিতেন তাহলেও কিন্তু অতটা মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব ছিল না । এই ধরনের আরো কিছু প্রতিযোগিতা রাখা যেতে পারে যেমন ধরুন ক্যাপশন প্রতিযোগিতা, ছবি প্রতিযোগিতা ইত্যাদি।

সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে কিছু প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা করুন যাতে কোন আকর্ষণীয় পুরস্কার রাখুন,দেখবেন আশানুরূপ ফলাফল পাবেন

এই প্রতিযোগিতাগুলো ছাড়ার পর সবখানে বেশি বেশি করে শেয়ার দেয়া শুরু করুন। কেননা মানুষ যদি নাই বা জানে আপনার প্রতিযোগিতা সম্পর্কে তাহলে কীভাবে অংশগ্রহণ করবে ? এইজন্য প্রয়োজন অনুসারে প্রতিযোগিতার বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করুন। 

২। প্রতিটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের সাথে ছবি ব্যবহার করুন 

যে কোন সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে আকর্ষণীয় ছবি ব্যবহার করলে ফলাফল তুলনামূলক ভাবে বেশি পাওয়া যায়। মনে রাখতে হবে ছবিটি অবশ্যই আকর্ষণীয় এবং কালারফুল হতে হবে। এজন্য চাইলে যে কোন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের সাহায্য নিতে পারেন। কেননা বেশ কিছু সার্ভে থেকে পাওয়া তথ্য এটাই দেখায় যে আকর্ষণীয় ছবি সহকারে যে কোন পোস্ট শতকরা ৯৪ ভাগ বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে যায়। এমনকি ৪০ ভাগ বেশি মানুষ এইসব পোস্টগুলোতে লাইক কমেন্ট এবং শেয়ার করে থাকেন। 

সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের সাথে ছবি থাকলে তার ইনগেজমেণ্ট তুলনামূলক অনেক বেশি

তবে আপনার যদি আপাতত গ্রাফিক্স ডিজাইনার রাখার বাজেট না থাকে তাহলে আপনি চাইলে “Canva” এর মত কিছু ওয়েবসাইট আছে যেগুলোতে ফ্রি তে আপনি যে কোন ছবি ডিজাইন করতে পারবেন। 

৩। বেশি বেশি করে আকর্ষণীয় ভিডিও পোস্ট করুন 

লেখা থেকে যেমন ছবি ব্যবহার করলে বেশি মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব ঠিক তেমনই ভিডিও ব্যবহারের মাধ্যমেও প্রচুর মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব হয়। আর তাই আপনার পেজের জন্য মাঝেমধ্যে কিছু ভিডিও তৈরি করুন, তবে সেটা অবশ্যই আকর্ষণীয় কিছু নিয়ে হতে হবে। 

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলো তে ভিডিও কন্টেন্ট বেশ জনপ্রিয়

আবার এক্ষেত্রে একটা বিষয় খেয়াল রাখবেন যে সেই ভিডিওগুলো সরাসরি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে আপলোড করতে হবে। অন্য কোথাও আপলোড করে সেটার লিংক শেয়ার করলে অতটা ভালো ফলাফল আসবে না। যেমন ধরুন ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ইউটিউব লিংক শেয়ার করার থেকে সরাসরি ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতেই আপলোড করুন। 

৪। ফ্যান ফলোয়ারদের সাথে বেশি বেশি যোগাযোগ রক্ষা করুন 

আপনার ফ্যান ফলোয়াররা যখন কোন সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে কমেন্ট করবে তখন তাদের কমেন্টের উত্তর দিন। তাদের সাথে বেশি বেশি যোগাযোগ রক্ষা করুন।

মজার ব্যাপার হল, বর্তমানে বড় বড় কোম্পানিরা যে কোন ফেসবুক কমেন্টে সেই একই দিনের মধ্যেই রিপ্লাই দেন। আর টুইটারের কমেন্টে মাত্র ত্রিশ মিনিটের মধ্যেই উত্তর প্রদান করতে সচেষ্ট থাকেন। 

ফ্যান ফলোয়ারদের সাথে নিয়মিত এভাবে যোগাযোগ রক্ষা করলে ফ্যান ফলোয়ারদের বিশ্বাস অর্জন করা খুব সহজ। তার কি চাচ্ছে আর কীভাবে চাচ্ছে, সেটা দেখে নিন আর সেই অনুযায়ী যদি কিছু করা সম্ভব হয় সেটা করার চেষ্টা করুন।

যখনই আপনি নিয়মিত আপনার ফ্যান ফলোয়ারদের কমেন্টের রিপ্লাই দেয়া শুরু করবেন আপনার ফ্যান ফলোয়াররা আরো বেশি বেশি আপনার সাথে যোগাযোগ রক্ষা করবে। 

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুনঃ

২০২০ সালে সোশ্যাল মিডিয়া এক্সপার্টরা কোথায় সময় এবং অর্থ ব্যয় করতে যাচ্ছে ?

৫। নিয়মিত প্রোফাইল পিকচার এবং কাভার ফটো পরিবর্তন করুন 

আপনার সোশ্যাল মিডিয়া পেজ বা প্রোফাইলে প্রোফাইল পিকচার এবং কাভার ফটো সবচাইতে বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে থাকে। আর তাই এগুলোকে আপনি চাইলেই কাজে লাগাতে পারেন। নিয়মিত এই ছবিগুলো পরিবর্তন করার মাধ্যমে আপনি ফ্যান ফলোয়ারদের সাথে আরো বেশি কানেকটেড থাকতে পারবেন। কেননা তাদের টাইমলাইনে নিয়মিতই আপনার ছবি এবং কাভার ফটো দেখতে থাকবে। 

ফেসবুকের ক্ষেত্রে প্রতি মাসে দুইবার আপনার প্রোফাইল পিকচার এবং কাভার ফটো পরিবর্তন করুন এবং টুইটারের ক্ষেত্রে আপনার সবচাইতে জনপ্রিয় কাজটি প্রোফাইল পিকচারের মাধ্যমে মানুষের কাছে পৌঁছে দিন। 

সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রোফাইল বা কভার পিকচার সবচেয়ে বেশি মানুষ দেখে থাকে

আর সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রোফাইল অথবা পেজটি যদি আপনার কোম্পানির হয়ে থাকে তাহলে কেবল মাত্র লোগোর ছবি দিয়ে রাখবেন না। এর সাথে এমন কোন ছবি সংযুক্ত করুন যেটা আপনার কোম্পানির কাজ সম্পর্কে একটি প্রাথমিক ধারনা দিয়ে থাকে। 

৬। এমন কিছু করুন যাতে করে মানুষ আপনাকে ফলো করে 

আপনার যদি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে নিয়মিত সেগুলোতে আপডেট রাখুন এবং এমন কিছু করতে থাকুন যাতে প্রতিনিয়তই মানুষ আপনাকে ফলো করতে থাকে।

উদাহরণ স্বরূপ বলা যেতে পারে আপনার টুইটার একাউন্টে অল্প কথার মাধ্যমে এবং ফেসবুকে ছবি সহকারে কোন গল্পের মত করে আপনার নির্দিষ্ট কাজের কথা বলতে পারেন। আপনার কাজের মাধ্যমে যদি কারো কোন উপকার হয় তাহলে সেগুলো বেশি বেশি করে সবার সাথে শেয়ার করুন। 

সোশ্যাল মিডিয়া তে গল্পের মাধ্যমে নিজের কাজের কথা বলুন যাতে মানুষ আকৃষ্ট হয়

খেয়াল রাখবেন আপনি যে প্ল্যাটফর্মে কাজ করছেন সেই প্ল্যাটফর্মে আপনার ফ্যান ফলোয়াররা আপনার কাছে কি চায়। আপনি সেভাবেই তাদের মত করে নিজেকে উপস্থাপন করবেন, যাতে করে মানুষ আপনাকে আরো বেশি বেশি করে ফলো করে। 

৭। আপনার পোস্টে অন্যদের ট্যাগ করতে উৎসাহ দিন

আপনার কোন পোস্ট থেকে যদি অন্য কারো উপকার হয় তাহলে সেখানে জানিয়ে দিন সবাই যাতে নিজদের বন্ধুদের সেখানে ট্যাগ করে দেয়। এতে করে আরো বেশি বেশি মানুষ আপনার সম্পর্কে জানতে পারবে। 

উদাহরণ স্বরূপ বলা যেতে পারে আপনি যদি কোন লেখকের বানী পোস্ট করেন, তাহলে সেখানে বলে দিন, এমন বানী যাদের প্রয়োজন আছে তাদের যেন সবাই ট্যাগ করে দেয়। 

৮। পোস্টের মধ্যে হ্যাশট্যাগ প্রদান করুন 

হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে দুইভাবে আপনার ফ্যান ফলোয়ার বৃদ্ধি করা যাবে। প্রথম উপায়টি হল, যে আপনার কার্যক্রমের সাথে মিল আছে এমন জনপ্রিয় হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করুন। আর দ্বিতীয় উপায়টি হল, বর্তমানে কোন একটি ট্রেন্ডি অথবা ভাইরাল ইস্যুর সাথে হ্যাশট্যাগ দিয়ে নিজের বক্তব্য প্রদান করুন।

কেননা, সেই হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে যদি কেউ সার্চ দেয় তাহলে আপনার পোস্টটি তারা দেখবে। এমনকি আপনার বক্তব্য পছন্দ হলে তারা আপনাকে ফলোও করে ফেলতে পারে। 

হ্যাশট্যাগ বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে ব্যবহার করা বেশ জনপ্রিয়

৯। সবসময় সবার সাথে হাস্যজ্বল থাকুন

মজার মজার ছবি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে। বর্তমানে মানুষ মজার যে কোন কিছুর প্রতি খুবই আকর্ষিত হয়ে থাকে। 

সোশ্যাল মিডিয়া তে পোস্ট করা ফানি ছবি সকলের কাছে বেশ আকর্ষণ করে থাকে

আর আপনি যদি মজার সাথে সাথে মানবিক কোন কাজের কথা শেয়ার করেন তাহলে দেখবেন সেই পোস্টটি আরো বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে গেছে। এই ধরনের মজার কিছু শেয়ার করার সময় খেয়াল করবেন বিভিন্ন নিশ অনুযায়ী মজার কিছু যেন পোস্ট করা হয়।

যেমন ধরুন আপনি বিড়াল নিয়ে মজার কোন কিছু শেয়ার করলেন, দেখবেন সেই পোস্টটি যারা বিড়াল পছন্দ করে তারা বেশি বেশি শেয়ার করছে। 

১০। পেইড বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করুন 

আপনার অডিয়েন্স অর্থাৎ ফ্যান ফলোয়ার বৃদ্ধি করার আরো একটি সহজ উপায় হল সোশ্যাল মিডিয়াতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা। তবে এক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে যে খুব বেশি বিজ্ঞাপনের উপর যাতে নির্ভরশীল না হয়ে যান। যে কয়জন ফ্যান ফলোয়ার আছে তাদের সাথে বেশি বেশি করে যোগাযোগ রক্ষা করুন এবং মাঝেমধ্যে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করুন, এভাবে ফলাফল বেশি পাওয়া যাবে বলেই সোশ্যাল মিডিয়া বিশেষজ্ঞদের ধারনা। 

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুনঃ

সফল সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হতে যে ৫টি গুণাবলী জরুরী !

১১। ফ্যান ফলোয়ার কখনো কিনবেন না ! 

হ্যাঁ, বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে কিছু ফ্যান ফলোয়ারের সংখ্যা তৈরি করা গেলেও, সেই সমস্ত বিজ্ঞাপনে আপনার পন্য অথবা কাজ সম্পৃক্তও অনেক কিছু থাকে। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতে বিজ্ঞাপন দেখবেন অনেকেই বলছে তারা দশ হাজার লাইক বা দশ হাজার ফ্যান সরবরাহ করে থাকে।

এই ধরনের কোন কিছুর সাথেই সম্পৃক্ততা রাখবেন না। কেননা, এই ধরনের ফ্যান ফলোয়ার দিয়ে আদতে আপনার কোন লাভই হবে না বরং মাঝখানে ভুগতে পারেন বিভিন্ন বিড়ম্বনায়। 

কেননা এই ধরনের ফ্যান ফলোয়ার কিনতে গেলে আপনার পেজে অনেক ফেক আইডি অথবা রোবট আইডি দিয়ে লাইক দেয়া হতে পারে। যেগুলো আদতে কোন কাজেই আসবে না। বেশি বেশি করে এমন সব আকর্ষণীয় পোস্ট দিন যেগুলোতে আকর্ষিত হয়ে মানুষ এমনিতেই যাতে আপনার প্রোফাইলে লাইক কমেন্ট করে যায়। 

পরিশেষে বলতে হয়, সব সময় ভিন্ন কিছু নিয়ে চিন্তা করুন এবং নিজেকে একটু ব্যতিক্রম হিসেবে উপস্থাপন করুন। বেশি বেশি করে আকর্ষণীয় ছবি এবং ভিডিও সহকারে পোস্ট করুন। আশাকরি অল্প কিছুদিনের মধ্যেই আপনি ফলাফল উপভোগ করা শুরু করে দিতে পারবেন। 

লেখক পরিচিতিঃ

Md.Arifur Rahman

Arifur Rahman, Digital Marketing Expert , SEO Expert , Digital Marketing Trainer, PPC Expert ,Social Media Specialist,Consultant, সোশ্যাল মিডিয়া

Digital Marketing Expert | SEO Expert | Digital Marketing Trainer |
PPC Expert | Social Media Specialist | Consultant

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

1 thought on “সোশ্যাল মিডিয়া ফ্যান ফলোয়ার কীভাবে বৃদ্ধি করবেন ?

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Back to Top