সামাজিক ও রাজনৈতিক বিষয়গুলো প্রমোশনের ক্ষেত্রে ফেসবুক নিয়ে এলো নতুন কিছু আপডেট । অর্থাৎ , ফেইসবুক সামাজিক বা রাজনৈতিক বিষয় গুলো  নিয়ে নতুন একটি এডভার্টাইসিং পলিসি আপডেট করেছে। তবে বাকি অন্যান এড গুলো এই আপডেটের আওতায় থাকবে না।  সে গুলো আগের মতোই পেমেন্টের মাধ্যমে করা যাবে। 

ফেইসবুক সামাজিক বা রাজনৈতিক বিষয় গুলো  নিয়ে নতুন একটি এডভার্টাইসিং পলিসি আপডেট করেছে। তবে বাকি অন্যান এড গুলো এই আপডেটের আওতায় থাকবে না।  সে গুলো আগের মতোই পেমেন্টের মাধ্যমে করা যাবে। 

কোর্সটি কিনতে ক্লিক করুন

এই আপডেটের সারাংশ হিসাবে বলা যেতে পারে যে, ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত United States  এর প্রধান ইলেক্শনে ফেইসবুক কিছু পলিটিকাল এবং সামাজিক অবক্ষয় মূলক বিজ্ঞাপনের সম্মুখীন হয়। যার ফলস্বরূপ হিসাবে ফেইসবুক এ ধরণের বিজ্ঞাপনের জন্য কিছু বিষয় জানতে চাইছে।  যেমন : এ ধরণের বিজ্ঞাপনের জন্য অৰ্থ কোথা থেকে আসছে এবং কে বা কারা  কারা বিজ্ঞাপনগুলো চালাচ্ছে .

ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গের এর মতে :

“কে বা করা এই বিজ্ঞাপন দিচ্ছে ফেসবুক এ সম্পর্কে নিশ্চিত হতে চাচ্ছে।  যেসব বিজ্ঞাপন দাতারা তাদের প্রোফাইল ভেরিফাই করবেনা তারা এ ধরণের বিজ্ঞাপন চালাতে পারবেনা।  এ বিষয়ে ফেইসবুক সদা সোচ্চার থাকবে এবং বিজ্ঞাপনের এই অর্থ কোথা থেকে আসছে এবং এর যোগান দাতা কারা ফেসবুক এই বিষয়ে করা নজরদারি  রাখবে। ”  

মূলত, এর অর্থ হলো বিজ্ঞাপনের সাথে সাথে  রাজনৈতিক বা সামাজিক অবক্ষয় মূলক বিজ্ঞাপন প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান এবং যে প্রতিষ্ঠানের জন্য বিজ্ঞাপন দিচ্ছে তার ও ভেরিফিকেশন করা ।  

তবে এখন, ফেসবুক এটিকে কিছুটা সহজ করতে চাইছে:

“যেহেতু এখানে কিছু কিছু বিজ্ঞাপনের প্রাথমিক উদ্দেশ্য এতটা জটিল না।  তাই, আমরা সেগুলোকে একটি উপসেটের মাধ্যমে আলাদা করার প্রক্রিয়া করেছি ।

বিজ্ঞাপনদাতাদের আর ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করা লাগবে না অথবা ‘pay for’ করা লাগবে না। এটি তখনি কার্যকর হবে যদি আমরা সে সমস্ত বিজ্ঞাপনে এ নিম্নোক্ত তিনটি বৈশিষ্ট দেখতে পারি : 

১. একটি পণ্য বা সেবা মূলক বিজ্ঞাপন গুলোতে প্রধানত পণ্য বা সেবার ব্যবহার বা নাম উল্লেখ করা হয়।

২. বিজ্ঞাপনের প্রাথমিক উদ্দেশ্য একটি পণ্য বিক্রি করা বা সেবা প্রচার করা হতে হবে।  এমনকি যে কোনো সামাজিক সমস্যা নিয়ে ও বিজ্ঞাপন করা যেতে পারে।

৩. অবশ্যই বিজ্ঞাপনের পণ্য বা সেবা কেনার জন্য একটি call -to -action অপসন থাকতে হবে।

সামাজিক ও রাজনৈতিক বিষয়গুলো প্রমোশনের ক্ষেত্রে ফেসবুক নিয়ে এলো নতুন কিছু আপডেট

তবে এখন যদি একটি বিজ্ঞাপন সামাজিক সমস্যা সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে রান করা হয় এবং স্পষ্টভাবে একটি পণ্য বা সেবা বিক্রি করা বুঝায় সে ক্ষেত্রে এই বিজ্ঞাপনটি এই নিয়মের আওতায় আসবেন না।

ফেইসবুক তার ব্যবহারকারীদের কাছে বিষয়টি সহজ ভাবে বোঝানোর জন্য কয়েকটি উদাহরণ দিয়েছে :

আর নয় সামাজিক সমস্যা মূলক বিজ্ঞাপন

আমাদের নতুন অনুষ্ঠান “আমাদের ভবিষৎ ” আমরা আসছি আপনার শহরে। অনুষ্ঠানের বিষয়  “আমরা কিভাবে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলা করতে পারি।” মাত্র ১০০ টাকা দিয়ে এখনই লুফে নিন আপনার টিকেটটি।  

ফেসবুকের ভাষ্যমতে এটি একটি পণ্যের প্রচার করা কে বোঝানো হচ্ছে এবং যা কোনো প্রকার সামাজিক সমস্যাকে সমর্থন করে না । তাই এই বিজ্ঞাপন রান করতে বিজ্ঞাপন কারীকে তার প্রফাইলে ভেরিফাই করা লাগেব না। 

এই কোর্সটি করতে এখানে ক্লিক করুন

সামাজিক সমস্যা মূলক বিজ্ঞাপন

প্রচন্ড শীতে উষ্ণতায় থাকার জন্য আমাদের মাঝে এই মাত্র আসে পৌঁছেছে এলকোহল। যা শরণার্থীদের সহায়তায় তৈরী করা হয়েছে। এখনই ক্রয় করুন।  (Shop Now )

এই উদাহরণটি পণ্য প্রচার করার সময় স্পষ্ট ভাবে সামাজিক সমস্যা তুলে এনেছে।  তাই এই বিজ্ঞাপনের জন্য বিজ্ঞাপনদাতাকে তার প্রোফাইল ভেরিফাইড করা প্রয়োজন।  

উদাহরণ গুলো দেখে অবশ্যই বুঝে গেছেন যে কি কারণে একটি পণ্য বা সেবা বিক্রি করা বিজ্ঞাপন ফেসবুকের এই পলিসির মধ্যে চলে আসলো।  মূল বিষয় হলো বড় বড় ব্র্যান্ড গুলো তাদের পণ্য বা সেবা বিক্রির জন্য বিজ্ঞাপন চালাতে পারে। তবে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে সে বিজ্ঞাপনটি যাতে কোনো ভাবেই  সামাজিক অবক্ষয় মূলক না হয়।  মূল কথা হলো এই বিজ্ঞাপনের জন্য যাতে সমাজে কোনো প্রভাব না পরে।

উপরে উল্লেখিত তিনটি প্রক্রিয়া পড়ার উপর ভিত্তি করে আমার মনে হচ্ছে যে, শেষ উদাহরণটি একটি সামাজিক সমস্যা বলে চিহ্নিত করা উচিত নয় কারণ এটি একটি পণ্যের প্রাথমিক প্রচার মূলক বিজ্ঞাপনও  হতে পারে। অন্য দিকে এই বিজ্ঞাপনে CTA ও সংযুক্ত করা ছিল।

মনে হচ্ছে বিষয় গুলো কিছুটা জটিল হয়ে গিয়েছে, তবে সারমর্ম হলো ফেইসবুক বা Meta তাদের প্লাটফর্মের বিভিন্ন জটিলতা কমিয়ে আরো বেশি ব্র্যান্ডের পণ্য প্রচারের পথ সহজ করতে চাচ্ছে। 

তবে এটি সত্য যে, ফেসবুকে বিজ্ঞাপন প্রদান করা তুলনামূলক ভাবে সময়। এবং এই সুবিধাটির অপব্যবহার করছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। তাই ফেসবুকের মার্কেটিং টীম টি খুবই দক্ষতার সাথে এই ধরণের জটিলতা সমাধান করছে। 

তবে যাই হোক, ফেসবুক তাদের নতুন নীতিমালা আপডেট করেছে, যা অনেক বিজ্ঞাপনদাতা এবং প্রতিষ্ঠানের জন্য নতুন করে চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়াবে।

ফেসবুকের বিজ্ঞাপনের ধাপ গুলো জানতে আমাদের ব্লগ গুলো পড়ে আসুন :
ফেসবুক বিজ্ঞাপনের ধাপসমূহ :কিভাবে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দিবেন 

ফেসবুক এডবিডিং এবং অপটিমাইজেশনের মাধ্যমে আরো কম খরচে বিজ্ঞাপন দিন

Sharing Is Caring

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top
Newsletter Subscription Looking for More Traffic from Digital Campaign

Subscribe to our weekly newsletter below and keep updated with us.