বর্তমানে বিশ্বের সব চেয়ে বড় এবং কার্যকরী সার্চ ইঞ্জিন হচ্ছে গুগল।  আপনি কি জানতে চান তা লিখে সার্চ করা মাত্রই গুগল আপনাকে আপনার কাঙ্খিত উত্তর দিয়ে দেয় পাশাপাশি আপনার প্রশ্ন সম্পর্কিত আরো অনেক তথ্যও আপনাকে জানিয়ে দেয়। সার্চ ইঞ্জিন বাদেও গুগল এর আরো অনেক বিজনেস রয়েছে।  গুগল সব সময়ই তার গ্রাহকদের মানসম্মত সার্ভিস দিয়ে আসছে।  তাহলে চলুন আজকে জেনে নেই গুগল সম্পর্কে অজানা কিছু চমকপ্রদ তথ্য ।

ল্যারি পেজ  এবং সেগ্রেই ব্রিন ১৯৯৬ সালে কালোর্ফোনিয়া স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির PHD অধ্যায়নরত দুইজন ছাত্র ছিলেন । সেই সময়কার সার্চ ইঞ্জিন এতটা কার্যকর ছিল না।  তখন কোনো একটি সার্চ রেজাল্ট কত বার সার্চ করা হয়েছে তার উপর ভিত্তি করে পরবর্তীকালে সার্চ রেজাল্টে দেখানো হতো।  যার ফলে কোনো কিছু সার্চ করে খুব একটা কার্যকর ফলাফল পাওয়া যেত না। তাই ল্যারি পেজ  এবং সেগ্রেই ব্রিন চেয়ে ছিলেন নতুন একটি সার্চ ইঞ্জিন চালু করতে যা আগের সার্চ ইঞ্জিন থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন এবং কার্যকরী ফলাফল দেখাবে।

গুগল সম্পর্কে অজানা কিছু চমকপ্রদ তথ্য

ল্যারি পেজ  এবং সেগ্রেই ব্রিন এর এই প্রচেষ্টা একটি সার্চ ট্রামের সাথে অন্যান ওয়েবসাইটের সাথে কতটা সম্পৃক্ততা রাখে তার উপর ভিত্তি করে রেজাল্ট শো করবে। তারা প্রথমে এই সার্চ ইঞ্জিনকে পেজরেঙ্ক মানে আখ্যায়িত করেন। কিন্তু তাদের এই সার্চ ইঞ্জিনের নাম দেন “ব্যাকবার” . এর নাম ব্যাকবার দেয়ার মূল কারণ হলো সার্চ রেজাল্টের ওয়েবসাইটের গুরুত্বের পাশাপাশি এটি ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক ও যাচাই করতে পারতো। 

তারপর ১৯৯৮ সালে ল্যারি পেজ  এবং সেগ্রেই ব্রিন তাদের এই সার্চ ইঞ্জিনের নাম ব্যাকবার থেকে পরিবর্তন করে Googol রাখেন। যা আসনে ভুলবানানে ছিল।  তাদের ভাষ্য মোতে Googol মানে হচ্ছে ১০০ এর পিছে অসংখ্য শূন্য।  যার মানে নতুন এই সার্চে ইঞ্জিনের মাধ্যমে গ্রাহকরা একটা সার্চ এর বিপরীতে অসংখ্য ফলাফল পাবে।  প্রথম অবস্থায়, গুগল স্ট্যানফোর্ড ইউনির্ভাসিটির ওয়েবসাইটের অধীনে চলত যার ঠিকানা ছিল google.stanford.edu এবং z.stanford.edu .

গুগল সম্পর্কে অজানা কিছু চমকপ্রদ তথ্য

তারপর তাদের এই সার্চ ইঞ্জিনের ডোমেইন নাম Google নিবন্ধিত করা হয় ১৫ই সেপ্টেম্বর, ১৯৯৭ সালে এবং ১৯৯৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর ল্যারি পেইজ ও সের্গেই ব্রিন একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে গুগল প্রতিষ্ঠা করেন। ২০০৪ সালের ১৯শে আগস্ট এটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে পরিণত হয়।

গুগল সম্পর্কে অজানা কিছু চমকপ্রদ তথ্য

২০১১ সালের মে মাসে, প্রথমবারের মত এক মাসে গুগলে ইউনিক ভিজিটর এক বিলিয়ন পার হয়। যা ছিল ২০১০ সালের মে মাসের থেকে ৮.৪ ভাগ বেশি। ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে, গুগল ঘোষণা করে এটি $৫০ বিলিয়ন বার্ষিক আয় করে ২০১২ সালে। যা ২০১১ সালের চেয়ে ১২ বিলিয়ন বেশি। আর বর্তমানে গুগল এর বার্ষিক আয়ের পরিমান এসে দাঁড়িয়েছে  ২৫৬.৭৪ বিলিয়ন ডলারে।

আমরা আজকের পর্বে জেনে নিলাম গুগল কিভাবে একটি গ্যারেজ থেকে শুরু হয়ে আজকের ডিজিটাল দুনিয়াতে রাজ করছে। ডিজিটাল দুনিয়ায় নিজেকে সব সময় আপডেট রাখতে আমাদের সাথেই থাকুন। 

Sharing Is Caring

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top
Newsletter Subscription Looking for More Traffic from Digital Campaign

Subscribe to our weekly newsletter below and keep updated with us.