পেইড পার ক্লিক—পিপিসি (PPC) বিজ্ঞাপন দেয়া খুবই জরুরী, তবে এটা আপনি ঠিক যতটা বুঝতে পারছেন সেটা হয়ত অন্য কাউকে সেভাবে বুঝিয়ে উঠতে পারছেন না। আবার আপনি যদি একজন নতুন উদ্যক্তা হয়ে থাকেন, তাহলে গুগুলে বিজ্ঞাপন দেয়ার গুরুত্ব সম্পর্কে আপনার একটা ধারণা থাকা উচিৎ।

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার দিকে অনেকেই এত বেশি ঝুঁকে গিয়েছে যে এই গুগুল সার্চ মার্কেটিং এর গুরুত্ব উপলব্ধি করতে পারছে না। কেননা ফেসবুক বিজ্ঞাপনও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

আদতে এই পিপিসি ক্যাম্পেইন আপনার ব্যবসা বা উদ্যোগকে খুব চমৎকার ভাবে মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারে। ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন ট্রেন্ড ফলো করে আপনি যদি সার্চ মার্কেটিং করে থাকেন, তাহলে আপনার লাভ ছাড়া আদতে কোন ক্ষতি হবে না।

 এছাড়াও আপনার পন্য অথবা সার্ভিসের প্রচার এবং প্রসারের ক্ষেত্রে পিপিসি ক্যাম্পেইন দারুন কার্যকর। আর কেনই বা কার্যকর হবে না, যে কোন কিছু সম্পর্কে জানতে তো আমরা সবার আগে গুগুলেই সার্চ দেই।

কেন আপনি পিপিসি PPC (Pay per click) এত গুরুত্বপূর্ণ  ??

প্রাথমিক ভাবে বলা চলে যে

** পিপিসি ক্যাম্পেইন বা গুগুলে বিজ্ঞাপন দিতে আপনার অনেক বেশি সময় লাগবে না।  

** পিপিসি বিজ্ঞাপনের ফলাফল আপনি খুব চমৎকার ভাবে রিপোর্টিং এর মাধ্যমে দেখতে পারবেন। কখন কোথায় কে আপনার ক্যাম্পেইনে ক্লিক করেছে সেটা আপনি খুব সহজেই জানতে পারছেন।

** এই তথ্য এবং রিপোর্টিং এর মাধ্যমে আপনি নিজের ব্যবসার একটি মার্কেটিং প্ল্যান তৈরি করতে পারবেন। এছাড়াও ডেটা ডিভেন মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে এই রিপোর্ট আপনাকে অনেক সহযোগিতা করবে।

আসুন দেখে নেই, পিপিসি ক্যাম্পেইন বা গুগুলে বিজ্ঞাপনের আরো বেশ কিছু সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে

কেন আপনি পিপিসি PPC (Pay per click) এত গুরুত্বপূর্ণ  ??

১। আপনার ব্যবসায় সফলতা নিয়ে আসতে পারে

মূলত এই একটা কারণই যথেষ্ট আপনাকে গুগুলে বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য উৎসাহী করে তুলতে। আপনি অবশ্যই বিজ্ঞাপন দিবেন গুগুলে। কেন দিবেন? কারন প্রচারেই প্রসার। আপনি যত ভালো পন্য বিক্রি করেন না কেন, আপনি যত ভালো সার্ভিস দিয়ে থাকেন না কেন, বেলাশেষে নিজের পন্য অথবা সার্ভিসের কথা মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। আর এই পৌঁছে দেয়ার কাজটা করতে হবে বেশ আকর্ষণীয় ভাবে।

যেহেতু এই মার্কেটিং মূলত এসইও অর্থাৎ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ভিত্তিক একটি পেইড মার্কেটিং প্রক্রিয়া এবং এখানে প্রচুর পরিমাণে কিওয়ার্ড রিসার্স করে বিজ্ঞাপন দেয়া হয়,  তাই এটা আপনার ব্যবসার সফলতার অন্যতম একটি হাতিয়ার হিসেবে কাজ করতে পারে।

২। পিপিসি বিজ্ঞাপন খুব সহজেই ট্র্যাক করা যায়

আপনি বিজ্ঞাপনে কত টাকা খরচ করছেন। প্রত্যেকটি ক্লিকের জন্য আপনাকে কত টাকা দিতে হচ্ছে গুগুলকে, এগুলো সবই আপনি ক্যাম্পেইনের মধ্যেই কয়েকটি ক্লিকের মাধ্যমে জানতে পারবেন। গুগুলের বেশ কিছু ফ্রি টুলস রয়েছে যেগুলোর মাধ্যম আপনি খুব চমৎকার ভাবে অনেক ধরণের ডেটা বা তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে রাখতে পারবেন।

আপনার কোন একটি বিজ্ঞাপনে যদি অনেক বেশি ক্লিক পরে এবং বেশ ভালো ভিজিটর পেয়ে যান, তাহলে আপনি এই রিপোর্ট অনুযায়ী বুঝতে পারবেন কীভাবে আপনার বিজ্ঞাপনটি কাজে লেগেছে।

আবার একই ভাবে আপনার বিজ্ঞাপন যদি তেমন একটা কার্যকর না হয়ে থাকে, তাহলেও আপনি সেটার কারন অনুসন্ধান করতে পারবেন। সফল এবং অসফল দুটো ক্যাম্পেইনকেই তুলনা করে সঠিক কারন বের করে ফেলতে পারবেন।

৩। খুব দ্রুত গুগুলে বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন

হ্যাঁ! যদিও একটি বিজ্ঞাপনের পেছনে অনেক ব্রেইনওয়ার্ক থাকে এটা সত্য। এছাড়াও সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সম্পর্কেও আপনার ধারণা থাকতে হবে। তবে আপনি যদি নিজে এগুলো সম্পর্কে অত ভালো করে নাও জানেন, তাতে সমস্যা নেই। অবশ্যই আপনি যে কোন সময়ে একজন বিশেষজ্ঞকে হায়ার করতে পারবেন।

তবে আপনি যখন গুগুলে বিজ্ঞাপন দিবেন, তখন আপনাকে অনেক কাজ করতে হবে না। অনেক জটিল কোন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে আপনাকে যেতে হবে না এই বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য। ঠিক যেমনটা দেখা যায় ইমেইল মার্কেটিং অথবা কন্টেন্ট মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে।

এগুলোর মধ্যে অনেক জটিল প্রক্রিয়া রয়েছে। তবে গুগুলে বিজ্ঞাপন খুবই সহজ এবং সাধারণ কয়েকটি ক্লিকের মাধ্যমেই একটি নির্দিষ্ট বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন একদম অল্প সময়ের মধ্যে।

এমনকি গুগুলের এই বিজ্ঞাপনে আপনি টেক্সট বোল্ড করার মাধ্যমে খুব অল্প সময়ের মধ্যে নিজের বক্তব্যের গুরুত্বপূর্ণ অংশ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারবেন। আপনার ওয়েবসাইটে যদি অনেক ভিজিটর আনতে চান এবং গুগুলে ফার্স্ট পেজে র‍্যাংক করাতে চান তাহলে পেইড মার্কেটিং অনেকটাই শর্টকাট পদ্ধতি বলা চলে।

৪। প্রত্যেকটি বিজ্ঞাপন আপনি নিজে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন

কেন আপনি পিপিসি PPC (Pay per click) এত গুরুত্বপূর্ণ  ??

কখন কোন বিজ্ঞাপনে কত টাকা খরচ করতে হবে অথবা কোন ধরণের কাস্টোমারদের কাছে এই বিজ্ঞাপনটিকে পৌঁছে দিতে হবে এগুলো সবই আপনার নিয়ন্ত্রনে থাকবে গুগুলে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে।

এমনকি কোন ধরণের কিওয়ার্ড ব্যবহার করা প্রয়োজন অথবা কোন বিজ্ঞাপন যদি হুট করেই বন্ধ করে দিতে হয় এগুলো সবই করতে পারবেন আপনি যে কোন সময়ে।

আদতে গুগুল বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে একটি বিষয় সব সফল মার্কেটাররাই বলে থাকেন, আর সেটা হল ছোট ছোট করে বাজেটের অনেকগুলো বিজ্ঞাপন তৈরি করতে। এরপর সেগুলোর ফলাফলের উপরে ভিত্তি করে সুনির্দিষ্ট বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনে বাজেট বাড়িয়ে দিতে। আর এই সবগুলো কাজই আপনার সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রনে থাকবে।

এছাড়াও গুগুলের বিজ্ঞাপনগুলোতে হয়ত বিজ্ঞাপন চলাকালিন সময়েই যে কোন লাইন অত্থবা এডিট করতে হতে পারে। এভাবে অনেকেই বিজ্ঞাপনকে অনেক বেশি অপটিমাইজ করে তোলে। আর এগুলো করার জন্য আপনাকে কোন রকেট সায়েন্স জানতে হবে না।

৫। যে কোন ধরণের পন্য অথবা সার্ভিসের জন্য পিপিসি বিজ্ঞাপন কার্যকরী

আপনার উদ্যোগ বা ব্যবসা যাই হোক না কেন, আপনার প্রধান উদ্যেশ্য হল কাস্টোমারের কাছে পৌঁছাতে পারা। আদতে সাধারণ কাস্টোমার নয় বরং সঠিক কাস্টোমারের কাছে পৌঁছাতে পারার পাশাপাশি তারা যাতে আপনার পণ্যটি ক্রয় করে অথবা আপনার সেবাটি গ্রহণ করে সেদিকে সর্বচ্চ প্রচেষ্টা রাখা।

আর গুগুল হল এই কাজের জন্য খুবই চমৎকার। কেননা এখানে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই বাছাই করে ফেলতে পারবেন আপনার কাজ না পণ্যের প্রতি আগ্রহী মানুষদেরকে। ধরুন আপনি মিষ্টির বিজ্ঞাপন দিতে চাচ্ছেন, এখন গুগুল কখনই এমন কারো কাছে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করবে না যাদের কাছে আপনি বিজ্ঞাপন দিতে চান না।

শুধুমাত্র আপনি যাদের কাছে নিজের পন্য সম্পর্কে জানাতে চান তাদের কাছেই বিজ্ঞাপনগুলো পৌঁছে যাবে গুগুলে পিপিসি ক্যাম্পেইন বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে।

কেন আপনি পিপিসি PPC (Pay per click) এত গুরুত্বপূর্ণ  ??

এছাড়াও আপনি বিজ্ঞাপনের পেছনে যে টাকা খরচ করছেন, সেই টাকা উঠে আসাটাও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। অর্থাৎ আপনি যাতে এই বিজ্ঞাপনের পেছনে টাকা খরচ করে লস না করেন সেদিকেও আপনি নজর রাখতে পারবেন। মনে রাখবেন ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং হল সবচাইতে আসল, আর এর জন্য পিপিসি ক্যাম্পেইনের তেমন কোন বিকল্প নেই।

এছাড়াও আপনি এই পিপিসি ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে শুরুতেই আপনার পন্য সম্পর্কে যদি একটি প্রাথমিক ধারণা দিতে দেন তাহলে শুধুমাত্র আগ্রহীরাই আপনার বিজ্ঞাপনের ক্লিক করবে। এক্ষেত্রে আপনাকে অদরকারি ক্লিকের পেছনে টাকা খরচ করতে হবে না। আর এই আগ্রহী ব্যক্তিরা আপনার বিজ্ঞাপনে যখন ক্লিক করবে তখন আপনার পন্য বিক্রয়ের সম্ভাবনাও অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়ে যায়।

৬। সুনির্দিষ্ট মানুষের কাছে বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে পারবেন

ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং পদ্ধতিতে পাওয়া তথ্য উপাত্ত এবং রিপোর্টিং এর উপর ভিত্তি করে আপনি খুব সহজেই নিজের বিজ্ঞাপন সুনির্দিষ্ট মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারবেন। আপনি কি ঢাকায় বিজ্ঞাপন দিতে চান নাকি আমেরিকার কোন শহরে, সব কিছুই সম্ভব গুগুলের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে।

এমনকি আপনি চাইলে সুনির্দিষ্ট আচরণ করা মানুষের কাছেও নিজের বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে পারবেন। যেমন ধরুন আপনি যদি সাইকেলের বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন, তাহলে শুধুমাত্র সাইকেলিং এর উপরে যারা ইন্টারেস্টেড তাদের কাছে এই বিজ্ঞাপন পৌঁছে যাবে।

কেননা ইন্টারেস্টেড না হলে কেউ আদতে শুধুমাত্র মনোরঞ্জনের জন্য বসে বসে গুগুলে সার্চ করে না। এছাড়াও আপনার কাস্টোমার কোন বয়সী হবে সেটাও আপনি খুব সহজে টার্গেট করে দিতে পারবেন।

৭। প্রচুর পরিমাণে তথ্য উপাত্ত আপনি পাবেন গুগুল বিজ্ঞাপনে

কেন আপনি প্রচুর পরিমাণে তথ্য উপাত্ত পাবেন? এর কারন হল আপনার ফোনে যে ইমেইল আইডি দিয়ে গুগুল একাউন্ট তৈরি করেছেন, সেই গুগুল একাউন্টের মাধ্যমে আপনি আসলে নিজের সব ধরণের তথ্যই গুগুলের কাছে ওপেন করে দিচ্ছেন।

এভাবে সব তথ্যই গুগুলের কাছে থাকে। আপনি কি পছন্দ করেন কি অপছন্দ করেন। কোন ধরণের পন্য নিয়ে আপনি গুগুলে সার্চ করেন।

কোন ধরণের বিজ্ঞাপন আপনার সামনে আসলে আপনি কি ধরণের আচরণ করেন। যেমন ধরেন আপনার কি লেখা বিজ্ঞাপন, ছবি বিজ্ঞাপন নাকি ভিডিও বিজ্ঞাপন পছন্দ সেটা গুগুল জানে। আর তাই আপনি যখন গুগুলে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে যাবেন তখন এই তথ্যগুলো খুব সুন্দর ভাবে কাজে লাগাতে পারবেন স্বাচ্ছন্দ্যের সাথেই।

আশাকরি আমাদের এই আর্টিকেলটি থেকে আপনি গুগুলে বিজ্ঞাপনের কিছু সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। আপনি যদি এই পিপিসি বা ক্লিক ভিত্তিক এই সার্চ মার্কেটিং কীভাবে কাজ করে সেটা সম্পর্কে তেমন কিছু না জেনে থাকেন তাহলে আমাদের এই সিরিজের প্রথম পর্ব পড়ে দেখতে পারেন।

পর্বঃ ১ পিপিসি PPC (Pay per click) কি এবং এই ক্লিক ভিত্তিক সার্চ মার্কেটিং কীভাবে কাজ করে?

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

3 thoughts on “কেন এই পিপিসি PPC (Pay per click) এত গুরুত্বপূর্ণ আর কেনই বা আপনি এই ক্লিক ভিত্তিক সার্চ মার্কেটিং এ ইনভেস্ট করবেন?

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Back to Top