ঠিক কিছুটা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ার মত হলেও লিংকডইন একটু ব্যাতিক্রম তো বটেই। কেননা এই প্লাটফর্মটিকে মূলত প্রফেশনাল সোশ্যাল মিডিয়া হিসেবে ধরা হয়। এর কারন হল সবাই এখানে নিজেদের ব্যক্তিগত বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা না করে বরং প্রফেশনাল বিষয়গুলোর দিকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে এবং প্লাটফর্মটি তৈরিও হয়ে সেই আদলে।

উপরে কোর্সটি কিনতে ক্লিক করুন

যেহেতু একটি প্রফেশনাল প্লাটফর্ম, তাই এখানে যদি আপনি একটু বুদ্ধি খাটিয়ে ডেটা ড্রিভেন পদ্ধতিতে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন তাহলে আপনি এই প্রফেশনাল অডিয়েন্স বেশ ভালো ভাবেই কাজে লাগাতে পারবেন। গতানুগতিক সোশ্যাল মিডিয়া থেকে একটু আলাদা হলেও ফেসবুক বিজ্ঞাপন এবং গুগুল বিজ্ঞাপনের সাথে এর কিছুটা মিল রয়েছে।

আজকের এই আর্টিকেলে আমরা লিংকইন নামক প্লাটফর্মে কিভাবে বিজ্ঞাপন দিবেন এবং কিভাবে বাজেট নির্ধারন করবেন সেই বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করব। এছাড়াও লিংকডইন বিজ্ঞাপনের কিছু উদাহরণ দেখব যার মাধ্যমে আপনি পুরো বিষয়টি নিয়ে আরো স্বচ্ছ ধারণা পেয়ে যাবেন।

লিংকডইনে খরচ বেশি তাই দামি পণ্য বা সার্ভিসের বিজ্ঞাপন দেয়াই বুদ্ধিমানে কাজ হবে
ডিজিটাল মার্কেটিং বিশেষজ্ঞদের মতে লিংকডইনে সাধারণত ক্লিক প্রতি আপনাকে ৭ থেকে ১১ ডলার পর্যন্ত পেমেন্ট করতে হবে। সুতরাং বুঝতেই পারছেন ১০০ ক্লিক পাওয়ার জন্য আপনাকে খরচ করতে হতে পারে প্রায় ৭০০ থেকে ১১০০ ডলার যা টাকার রুপান্তর করলে দাঁড়ায় প্রায় ৬০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার মত।

এখন ধরুন আপনি খুব সুন্দর ভাবেই ৭০ হাজার টাকা খরচ করে বিজ্ঞাপন দিলেন এবং ১০০ ক্লিক থেকে ৪০ জন কাস্টোমার পেলেন। এখন আপনার পণ্য বা সার্ভিসের দাম যদি এক হাজার টাকার হয় তাহলে আপনি ৭০ হাজার খরচ করে ৪০ হাজার টাকার পণ্য বিক্রয় করলেন। আপনার ROI অর্থাৎ রিটার্ন অফ ইনভেসমেন্ট পুরোটা উঠে আসল না। এক্ষেত্রে আপনার পন্যের দাম যদি ২ হাজার টাকা করে হয় তাহলেই হয়ত আপনি ১০ হাজার টাকা লাভ করতে পারবেন।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন, লিংকডইনে কমদামী পণ্য বা সার্ভিসের বিজ্ঞাপন দেয়া মোটেও বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। তাই আপনাকে এমনভাবে এখানে বিজ্ঞাপন দেয়া লাগবে, যাতে আপনার বিজ্ঞাপন খরচটা পুরোপুরি কাজে লাগে।

তবে আপনি যদি দীর্ঘমেয়াদী কাস্টোমার তৈরি করতে চান, তাহলে আপনি কমদামী পণ্য অথবা সার্ভিসটির বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। যেমন ধরুন আপনার হয়ত একটি পণ্য রয়েছে যেটার দাম ১০০ টাকা। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এই পণ্য বিক্রয় করলে আপনার হয়ত বিজ্ঞাপনের খরচই উঠে আসবে না। তবে আপনি যদি মনে করেন যে এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে কাস্টোমার প্রতিনিয়ত আপনার কাছ থেকেই পণ্যটি ক্রয় করবে তাহলে সেক্ষেত্রে আপনি কমদামী পন্যের বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

কমদামী পণ্য কিন্তু লাভজনক বিজ্ঞাপনের উদাহরণ
যেমন ধরুন আপনার একটি সফটওয়ার রয়েছে, উদাহরণ হিসেবে দেখা জাক নেটফ্লিক্সের কথাই। মাসে মাত্র ২০০ থেকে ৩০০ টাকার মধ্যে সাবস্ক্রিপশন। এখন বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সাবস্ক্রিপশন যদি তারা নিতে পারে, তাহলে কিন্তু দ্বিতীয় মাসে কোন ধরণের বিজ্ঞাপন ছাড়াই তারা এই কাস্টোমাদের একটি বড় অংশের পুনরায় সাবস্ক্রিপশন পেতে যাচ্ছে। আর এটা বছরের পর বছর দীর্ঘমেয়াদী সাবস্ক্রিপশনেও রূপান্তরিত হতে পারে।

ঠিক এমনই আপনার যদি নবজাতক শিশুর লালন পালনের পণ্য নিয়ে বিজনেস থাকে, তাহলে আপনি যদি একজন বাবা অথবা মা’কে আপনার একটি পন্যের মাধ্যমে সন্তুষ্ট করতে পারেন তাহলে ধরে নেয়া যেতে পারে তারা পরবর্তীতে আপনার থেকে আরো অন্যান্য পণ্য ক্রয় করতে পারে।

আর যেহেতু লিংকডইন একটি প্রফেশনাল স্পেস, তাই আপনার যদি কোন প্রফেশনালদের জন্য সার্ভিস থাকে তাহলে সেটার বিজ্ঞাপন দিলে আপনি অনেক বেশি লাভবান হতে পারবেন। যেমন ধরুন আপনার হয়ত একটি প্রফেশনাল মেইল করার সফটওয়ার রয়েছে, যার মাধ্যমে খুব চমৎকার ভাবে বিভিন্ন ধরণের মেইল ডিজাইন করা যায়। আপনি এখন এই পন্যের বিজ্ঞাপন দিলে প্রফেশনালরা এই পন্যটির মাধ্যমে উপকৃত হতে পারে, তাই তাদের মধ্যে এই পণ্যটি ক্রয়ের সম্ভাবনাও বেশি দেখা যাবে। এমনকি তারা দীর্ঘমেয়াদী সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে আপনার পণ্যটি ব্যবহারও করতে পারে।

৮.ধরণের লিংকডইন বিজ্ঞাপন

লিংকডইনের বিজ্ঞাপনের সুবিধা অসুবিধা সম্পর্কে আমরা বিস্তারিত জানলাম। এখন আমরা কথা বলতে যাচ্ছি যে ফরম্যাটগুলোতে আপনি এই প্লাটফর্মে বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন। ঠিক গুগুল অথবা ফেসবুকের বিজ্ঞাপন দেয়ার মতই এখানেও আপনি ছবি, লেখা, ভিডিও, মেসেজ সহ আরো নানা ধরণের বিজ্ঞাপনে দিতে পারবেন। আসুন তাহলে এই ফরম্যাটগুলো সম্পর্কে আরেকটু বিস্তারিত জেনে নেইঃ

১। সিঙ্গেল ছবির মাধ্যমে বিজ্ঞাপন

নির্দিষ্ট একটি ছবির সাথে সামান্য কিছু আকর্ষণীয় কথা লিখে তার মাধ্যমে আপনি লিংকডইনে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। সাধারণত এই ধরণের বিজ্ঞাপনগুলো আপনার লিংকডইন ফিডের মধ্যেই দেখা যায়। আর কিভাবে আপনি এই ছবিকে আরো বেশি আকর্ষণীয় করে তুলতে পারবেন এই বিষয়ে আপনার ইতোমধ্যেই ফেসবুক বিজ্ঞাপন নিয়ে লেখা সিরিজের মধ্যে আলোচনা করেছি। আপনি চাইলে সেটা পড়ে দেখতে পারেন, আশাকরি আপনার উপকারেই আসবে।

২। লেখার মাধ্যমে বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপনের এই ধরণটি কিছুটা হলেও গুগুল বিজ্ঞাপনের সাথে মিলে যায়, কেননা এখানে আপনাকে খুব সামান্য কিছু লেখার মাধ্যমেই নিজের বিজ্ঞাপনের মুল ভাব প্রকাশ করতে হবে। নিচের এই ছবিটি দেখলেই বুঝবেন যে লিংকডইনের লেখার মাধ্যমে দেয়া বিজ্ঞাপনগুলো আদতে কি ধরণের হয়ে থাকে।

যেহেতু কিছুটা গুগুল বিজ্ঞাপনের মতই এই অংশটি, তাই লেখা কিভাবে আকর্ষণীয় করে তুলতে পারবেন সেটা গুগুল বিজ্ঞাপনের লেখার স্টাইল ফলো করতে পারেন। আমাদের লেখা আর্টিকেলটিও পড়ে দেখতে পারেন।

৩। ভিডিও বিজ্ঞাপন
ছবি যেমন অনেক কথা বলে, ঠিক তেমনই একটি সুন্দর ভিডিও আপনার অনেক পণ্য বিক্রয় করে ফেলতে পারে। এখানে ভিডিও বিজ্ঞাপন কিভাবে দিবেন সেটা থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ আপনার ভিডিওর মধ্যে কি বার্তা রয়েছে। অর্থাৎ ভিডিও তৈরি করার ক্ষেত্রে আপনাকে অনেক বেশি মনযোগী হতে হবে।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি অন্যতম অধ্যায় হল ভিডিও মার্কেটিং আর এক্ষেত্রে লিংকডইনের মত চমৎকার প্রফেশনাল সোশ্যাল মিডিয়াতে ভিডিও মার্কেটিং অবশ্যই একটি প্রভাব ফেলতে পারে। তবে লিংকডইনের ভিডিও বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে আপনার ভিডিওটি অবশ্যই ১৫ সেকেন্ডের হতে হবে।

৪। ক্যারাসোল বিজ্ঞাপন
বেশ কয়েকটি ছবি পরপর কিছুটা গ্যালারির মত করে আসবে এমন ভাবে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করাকে ক্যারোসল বিজ্ঞাপন বলা হয়। অনেক ডিজিটাল মার্কেটিং বিশেষজ্ঞের মতে সিঙ্গেল ইমেজ ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন দেয়া থেকে ক্যারোসল এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেয়া অনেক বেশি কার্যকর।

উপরের উদাহরণটি দেখতে পাচ্ছেন, এটা হল শাটারস্টক নামক কোম্পানির ক্যারোসলের মাধ্যমে দেয়া লিংকডইন বিজ্ঞাপন। এখানে দেখতে পাচ্ছেন ছবির নিচে লেখা দেয়ারও সিস্টেম রয়েছে। এই সিস্টেমকে কাজে লাগিয়ে দর্শক অর্থাৎ আপনার অডিয়েন্সকে আকর্ষণ করা সম্ভব। বিশেষ করে আপনি যদি বেশ ভালো ভাবে ছবিগুলো তৈরি করতে পারেন সেক্ষেত্রে আপনার বিজ্ঞাপনে ক্লিক অনেক বেশি হতে পারে।

৫। স্পটলাইট/ডায়নামিক বিজ্ঞাপন

এই ধরণের বিজ্ঞাপন বেশ চমৎকার। আপনার কাছে কেমন লাগবে আপনি যদি লিংকডইন ব্যবহার করার সময় হুট করেই একটি বিজ্ঞাপন দেখেন যেখানে আপনার নাম এবং ছবি আছে! হ্যাঁ! এই ধরণের বিজ্ঞাপন ঠিক এমনই।

আপনি যখন আপনার পণ্য ক্রয় করার জন্য বিজ্ঞাপন দিবেন, তখন ব্যবহারকারী এই বিজ্ঞাপনে নিজের নাম এবং ছবি দেখবে আর তার ঠিক নিচেই আপনি তার উদ্যেশ্যে যে লেখা দিয়েছেন, সেটা দেখবে। অন্যান্য বেশ কিছু প্লাটফর্মেও এই ধরণের বিজ্ঞাপন বেশ জনপ্রয়িতা লাভ করেছে। নিচে এই ধরণের বিজ্ঞাপনের একটি উদাহরণ দিচ্ছিঃ

৬। মেসেজের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন
ইমেইল মার্কেটিং এর সাথে এই বিজ্ঞাপনের বেশ কিছুটা মিল রয়েছে। ইমেইলের ক্ষেত্রে আপনি যেমন বিভিন্ন বিজ্ঞাপন যুক্ত মেইল পান, ঠিক তেমনই এই মেসেজ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আপনি মেসেজ পাবেন।

লিংকডইনে আপনার যে প্রোফাইল রয়েছে সেখানে মেসেজের মাধ্যমে এই ধরণের বিজ্ঞাপন দেয়া যেতে পারে। আপনি চাইলেই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর কাছে মেসেজের মাধ্যমে নিজের বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে পারবেন।

৭। চ্যাটবটের মাধ্যমে কথোপকথন বিজ্ঞাপন
রকমারির মত বেশ কিছু ই-কমার্স প্লাটফর্মে আপনি যখন যাবেন, তখন দেখবেন একটি মেসেজ শো করছে এবং সেখানে আপনি নিজের প্রয়োজন জানাতে পারবেন। আর সেখান থেকেও অটোমেটিক আপনার কাছে উত্তর আসবে। আপনি হয়ত ভাবতে পারেন সেখানে কোন মানুষ উত্তর দিচ্ছে, কিন্তু আদতে সেখানে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স সমৃদ্ধ রোবটের মাধ্যমে এই উত্তর দেয়া হয়ে থাকে।

ঠিক তেমনই আপনি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এই ধরণের চ্যাটবট সেট করে দিতে পারেন এবং নির্দিষ্ট করে দিতে পারেন প্রশ্নের উত্তরে বট থেকে কি ধরণের রিপ্লাই যাবে। এই ধরণের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর সাথে সংযোগ স্থাপনকে এক ভিন্ন মাত্রা যোগ করে দেয়।

৮। ইভেন্ট বিজ্ঞাপন
আপনি যদি লিংকডইনের মধ্যেই কোন লাইভ সেশন করতে চান অথবা কোন ধরণের ইভেন্ট করতে চান তাহলে আপনি এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সেই ইভেন্টের প্রচারনা করতে পারবেন খুব সহজেই। এমনকি ভার্চুয়াল কোন অয়েবনিয়ার অথবা যুম মিটিং এর বিজ্ঞাপনও এই মাধ্যমে দেয়া যেতে পারে।

লিংকডইন পোস্ট বুস্টের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন
ধরুন আপনি নিজের কোম্পানি সম্পর্কে চমৎকার কিছু তথ্য একটি পোস্টের মাধ্যে তুলে ধরেছেন। আর দেখছেন সবাই সেই পোস্টে বেশ সাড়া দিচ্ছে। আপনি এখন চাইলে সেই পোস্ট আরো অনেক বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন কিছুটা ফেসবুক পোস্ট বুস্টের মত করেই। এই ধরণের বিজ্ঞাপনের মধ্যে আপনি কোন একটি ছবি রাখতে পারবেন নিজের বেশ কিছু লেখার পাশাপাশি।

তবে এই ধরণের পোস্ট বুস্ট যদি আপনি না করতে চান তাহলে অন্যান্য ধরণের বিজ্ঞাপন ট্রাই করে দেখতে পারেন। সবাই যে এক ধরণের বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে সফল হবে ব্যপারটা মোটেও এমন নয় বরং সবাইকে নিজের সেরাটা চেষ্টার মাধ্যমে খুঁজে নিতে হয়।

তবে টেক্সট বিজ্ঞাপন অর্থাৎ শুধুমাত্র লেখার মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রদান করতে গেলে খেয়াল রাখবেন যে এই ধরণের বিজ্ঞাপন শুধুমাত্র ডেক্সটপ ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছাবে। মোবাইল ব্যবহারকারীদের কাছে এই বিজ্ঞাপন পৌঁছাবে না।

লিংকডইন বিজ্ঞাপনের সময় লিংকডইনের দেয়া সাজেশন ইগনোর করুন
লিংকডইনে বিজ্ঞাপন দেয়ার সময় লিংকডইন থেকে বিভিন্ন ধরণের অটোমেটিক সাজেশন আসবে, সেগুলোর দিকে বেশি মনযোগী হবেন না। বরং নিজের পছন্দ অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নিন। কেননা এটা শুধুমাত্র একটি অটোমেটেড সিস্টেম, আর আপনার ব্যবসা সম্পর্কে আপনি অবশ্যই লিংকডইন থেকে ভালো জানবেন।

লিংকডইনের অকশন সিস্টেম
গুগুলের বিজ্ঞাপনের মতই লিংকডইনে রয়েছে অকশন বা বিডিং সিস্টেম। নির্দিষ্ট একটি কিওয়ার্ড বা বিজ্ঞাপনের জন্য ঠিক কত খরচ হবে সেটা এই বিডিং এর মাধ্যমে সেট হয়ে থাকে।

একই বিষয়ের উপর যখন দুইজন মানুষ বিজ্ঞাপন দেয়, তখন প্রথমে কার বিজ্ঞাপন দেখানো হবে সেটা বিডিং এর উপর নির্ভর করে। আর তাই বিজ্ঞাপন কোয়ালিটির পাশাপাশি আপনাকে এই বিডিং এর খেত্রেও মনোযোগী হতে হবে।

এছাড়া আপনার বিজ্ঞাপনটি রিলেভেন্ট হতে হবে। আপনার বিজ্ঞাপন কতটা উপযোগী এবং এর বিডিং কত এর উপর অনেকাংশে নির্ভর করে বিজ্ঞাপনের র‍্যাংকিং। আপনি যদি এই র‍্যাংকে এগিয়ে থাকেন তাহলে আপনি ভালো ইউজারের কাছ থেকে ক্লিক পাবেন। বিজ্ঞাপনের র‍্যাংকিং সিস্টেম যদি বিস্তারিত জানতে চান তাহলে আমাদের গুগুল বিজ্ঞাপন গাইডটি পড়ে দেখুন।

বারবার টেস্টের মাধ্যমে সঠিক বিজ্ঞাপনটি নির্ধারন করুন
প্রথমেই বড় অংকের বিজ্ঞাপন খরচ করবেন না। কেননা আপনি হয়ত ভাবছেন আপনার বিজ্ঞাপনটি ভালো ফলাফল প্রদান করবে কিন্তু বিজ্ঞাপন দেয়ার পর দেখা যেতে পারে সেটা কাজ করছে না। আর তাই আপনাকে প্রথমে অল্প খরচের মধ্যে বিজ্ঞাপন দিয়ে দেখে নিতে হবে যে আপনার বিজ্ঞাপন কি আদৌ কাজ করছে কি না অর্থাৎ ফলাফল আসছে কি না। আপনার পণ্য বিক্রয় হচ্ছে কি না অথবা আপনার সার্ভিস বিক্রয় হচ্ছে কি না।

এক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি কম খরচের বিজ্ঞাপন একসাথে দেয়া ভালো। এক্ষেত্রে সেগুলো থেকে সঠিক বিজ্ঞাপনটি বাছাই করে নিতে সুবিধা হবে। এই ধরণের বাছাই প্রক্রিয়াকে বলা হয়ে থাকে বিজ্ঞাপনের এ/বি টেস্টিং।

বিজ্ঞাপনের রিপোর্ট এনালাইসি করুন
বিজ্ঞাপন দেয়ার পর আপনি বিস্তারিত রিপোর্ট পাবেন যে আপনার বিজ্ঞাপনে কারা কারা ক্লিক করছে তাদের বয়স কত এবং তাদের লোকেশন কোথায়। এই ধরণের নানা তথ্য এবং উপাত্ত্বের উপর ভিত্তি করে আপনি পরবর্তীতে আরো অপটিমাইজ বিজ্ঞাপন প্রদান করতে পারবেন।

পরিশেষে এটা বলা যায় যে, যদিও এই প্লাটফর্মের মধ্যে খরচ কিছুটা বেশি, তবুও আপনার প্রফেশনাল ব্যক্তিদের কাছে পৌঁছানো এই প্লাটফর্মটি সহজ করে দেয়। আপনার টার্গেটেড অডিয়েন্স যদি প্রফেশনাল ব্যক্তিরা হয়ে থাকে, তাহলে এই প্লাটফর্মটি আপনার জন্য একদমই পারফেক্ট।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top