২০২০ সালের জানুয়ারি মাস থেকেই ইউটিউব পলিসি তে আসছে বড় একটি পরিবর্তন। যার ফলে ইউটিউবারদের মধ্যে ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে উদ্বেগের ঝড়। অনেকের ধারনা ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জন আশঙ্কাজনক হারেই কমে যেতে পারে।

কোর্সটি করতে এখানে ক্লিক করুন

ইউটিউব পলিসি পরিবর্তনে ইউটিউবারদের অর্থ উপার্জন কি তবে কমে যাবে?

উল্যেখ্য যে, নতুন ইউটিউব পলিসি ‘র এই পরিবর্তনগুলো মূলত আমেরিকান ফেডারেল ট্রেড কমিশনের (FTC) একটি অভিযোগ অথবা উদ্বেগের কারনেই হতে যাচ্ছে। ফেডারেল ট্রেড কমিশনের বক্তব্য ছিল ইউটিউব পলিসি তথা ইউটিউবের বিগল পলিসির সাথে চিলড্রেন’স অনলাইন প্রাইভেসি প্রোটেকশন অ্যাক্ট (COPPA) এর সামঞ্জস্যতায় ছিল বেশ খানিকটা গড়মিল।  

আর এই সামঞ্জস্যতা তৈরি করার জন্যই আসছে বেশ কিছু পরিবর্তন। তবে উদ্বেগের বিষয় হল সবগুলো পরিবর্তনই তথা নিউ ইউটিউব পলিসি হবে মূলত ইউটিউবে কোন ধরনের ভিডিওতে কি বিজ্ঞাপন দেয়া যাবে তার উপরেই!

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুনঃ 

ইউটিউব চ্যানেল শুরু করার আগে যে যে বিষয় গুলো মাথায় রাখা উচিত

আসুন ইউটিউব পলিসি পরিবর্তনগুলো সম্পর্কে একটু জেনে নেইঃ

চিলড্রেন’স অনলাইন প্রাইভেসি প্রোটেকশন অ্যাক্ট (COPPA) এর মতে, শিশুদের জন্য তৈরি করা ভিডিওতে অনলাইন ইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্যাবলির উপর ভিত্তি করে দেয়া বিজ্ঞাপনগুলো শিশুদের চ্যানেলে প্রকাশ করা বন্ধ হয়ে যাবে।

কোর্সটি করতে এখানে ক্লিক করুন

কেননা এই আইন অনুযায়ী এই ধরনের বিউজ্ঞাপন শিশুদের জন্য প্রচার সম্পুর্ন রূপে নিষিদ্ধ!

ইউটিউব কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই ইউটিউবারদেরকে নতুন ইউটিউব পলিসি বিষয়ে বিভিন্ন পরামর্শে বলতে শুরু করেছে যে, এই পরিবর্তনগুলোর কারনে তাদের ইউটিউব ভিডিও থেকে উপার্জন হয়তবা অনেকাংশেই কমে আসতে পারে।

তাদের বক্তব্য হলঃ

এখন থেকে এই আইনের পুরোপুরি প্রয়োগের কারনে ব্যক্তিগত তথ্যাবলির উপর ভিত্তি করে দেয়া অনলাইন বিজ্ঞাপনগুলো শিশুদের জন্য তৈরি ভিডিওতে আর প্রচারিত হবে না। তবে ইউটিউব পলিসি তে ব্যক্তিগত তথ্যবলি ব্যবহার না করে দেয়া বিজ্ঞাপনগুলো শিশুদের জন্য তৈরি ভিডিওতে দেখানো হতে পারে।

ইউটিউবারদের উদ্বেগের কারণ

বর্তমানে ইউটিউবাররা একটি উদ্বিগ্ন কেননা তারা এখনো জানেন না, কোন ভিডিওগুলো শিশুদের জন্য উপযোগী এবং কোনগুলো নয় সেটা ইউটিউব ঠিক কিভাবে নির্ধারণ করতে যাচ্ছে।

যদিও সবাই নিজেদের চ্যানেল থেকে এখনই বলে দিতে পারছে যে তাদের তৈরি ভিডিওগুলো শিশুদের জন্য তৈরি কি না। তবুও ইউটিউব কর্তৃপক্ষ থেকেও তাদের এলগরিদমের মাধ্যমেও শিশুদের জন্য উপযোগী ভিডিওগুলো আলাদা করে নির্ধারন করার কোন না কোন ব্যবস্থা হয়ত রাখবেই!

ইউটিউউবাররা এখন যে বিষয়টিও নিয়ে উদ্বিগ্ন সেটা হল, হয়ত দেখা যাবে তাদের ভিডিওতে অটোমেটিক ভাবেই “শিশুদের জন্য তৈরি” লেবেলটি জুড়ে দেয়া হতে পারে।

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে : এখানে ক্লিক করুন

আর এমনটা হলে সেই ভিডিও থেকে তাদের অর্থ উপার্জনও অনেকাংশে কমে যাবে। ইউটিউব যদিও এখন বিভিন্ন উদাহরণের মাধ্যমে দেখাতে চাচ্ছে যে কোন ভিডিওগুলোতে এই ধরনের লেবেল দেয়া হবে, তবু এখানেও বেশ কিছু ফাঁক ফোঁকর রয়েই গেছে।

ইউইটিউবের মতে, সে সমস্ত ভিডিওগুলোই শিশুদের জন্য তৈরি ভিডিও হিসেবে নির্ধারিত হবে যেগুলোর মধ্যেঃ

  • শিশুদের অথবা কোন শিশু চরিত্রকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে
  • জনপ্রিয় কোন অনুষ্ঠান অথবা অ্যানিমেশন মাধ্যমে তৈরি করা শিশুদের বিভিন্ন চরিত্রকে যে সব ভিডিওতে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে
  • শিশুদের খেলনা ব্যবহার করে কোন অভিনয় অথবা গল্প বলা হলে
  • শিশুদের মধ্যে আগ্রহ জাগায় এমন কোন ধরনের কল্পনাপ্রসূত ভিডিও হলে
  • জনপ্রিয় জ্ঞান, কবিতা অথবা গল্পকে যদি শিশুদের ভিডিওতে প্রাধান্য দেয়া হয়
  • “শিশুদের জন্য তৈরি ভিডিও” এই শিরোনামটি দিয়ে আদতে কি বোঝানো হচ্ছে ?
  • বেশ কিছু জনপ্রিয় চ্যনেল রয়েছে যারা শিশু চরিত্র অথবা শিশুদের জন্য তৈরি অনুষ্ঠানের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন ভিডিও তৈরি করছে যেগুলো কি না তরুণ এবং পূর্ণ বয়স্কদের মধ্যেও বেশ জনপ্রিয়

কোর্সটি করতে এখানে ক্লিক করুন

উদাহরণ স্বরূপ

বলা যেতে পারে ফোর্টনাইট এবং মাইনক্রাফট এর মত বেশ কিছু গেমস, কেননা এগুলো সব বয়সের মানুষের মধ্যেই সমহারে জনপ্রিয়।

যদিও এই গেমসগুলো সব বয়সের মানুষই খেলে থেকে, তবুও এই ধরনের ভিডিওগুলোও কিন্তু “শিশুদের জন্য তৈরি” শিরোনামের মধ্যে ঢুকে যাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে।

এখনই ফ্রীল্যান্সিং শুরু করুন : এখানে ক্লিক করুন

তারমানে কি এটাই দাঁড়াচ্ছে যে, যে সব চ্যানেল মাইনক্রাফট অথবা ফোর্টনাইটের মত ভিডিও তৈরি করে তাদের ভিডিওতে আর ব্যক্তিগত তথ্যের উপর ভিত্তি করে দেয়া বিজ্ঞাপনগুলো প্রকাশিত হবে না?

আপাতত জানুয়ারি না আসা পর্যন্ত এই প্রশ্নগুলোর সঠিক উত্তর আমরা পাচ্ছি না। তবে তার আগেই বিভিন্ন ইউটিউবাররা নিজেদের উদ্বেগ এবং আশংকার কথাগুলো  আমেরিকান ফেডারেল ট্রেড কমিশন (FTC) এর কাছে অভিযোগ আকারে প্রকাশ করা শুরু করেছে।

এমনকি ইউটিউবের সর্ববৃহৎ চ্যানেল PewDiePie পর্যন্ত এই চিলড্রেন’স অনলাইন প্রাইভেসি প্রোটেকশন অ্যাক্ট (COPPA) এর ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করে ভিডিও তৈরি করেছে। এদিকে আমেরিকান ফেডারেল ট্রেড কমিশন (FTC) ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের ৯ তারিখ পর্যন্ত বিভিন্ন এই বিষয়ে অভিযোগ গ্রহন করবে।

তবে এই পুরো বিষয়টির মধ্যে সবচাইতে আশঙ্কাজনক ব্যাপারটি হল, আপনার কোন ভিডিও যদি ইউটিউবের অলগোরিদমের মাধ্যমে “শিশুদের জন্য তৈরি” শিরোনামে অন্তর্ভুক্ত হয়ে যায় তাহলে সে নিয়ে আপনার কোন ধরনের অভিযোগ বা আপিল করার সুযোগ থাকছে না।

এখানে যে অপশনটি আপনার জন্য থাকবে সেটা হল, “আইনী পরামর্শ নিন”। অর্থাৎ আপনার যদি কোন কিছু বলার থাকে তাহলে লইয়ারের মাধ্যমে কোর্টে গিয়ে বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ করতে হবে!

লেখক পরিচিতিঃ

Md.Arifur Rahman

Arifur Rahman, Digital Marketing Expert , SEO Expert , Digital Marketing Trainer, PPC Expert ,Social Media Specialist,Consultant,নতুন ইউটিউব পলিসি, ২০২০ সালের জানুয়ারিতে ইউটিউব পলিসি পরিবর্তন আসছে !

Digital Marketing Expert | SEO Expert | Digital Marketing Trainer |
PPC Expert | Social Media Specialist | Consultant

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top